ভেসে আসা কিশোরীর মরদেহ নিয়ে টানাটানি করছিলএকদল শেয়াল ও কুকুর

0
78

ব্র‏হ্মপুত্র নদে ভেসে আসে অজ্ঞাত এক কিশোরীর মরদেহ। তা নিয়ে টানাটানি করছিল একদল শেয়াল ও কুকুর। মাছ ধরতে যাওয়া জেলেরা এমন দৃশ্য দেখে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ এসে কিশোরীর গলিত মরদেহ উদ্ধার করে।

আজ শুক্রবার সকালে ময়মনসিংহের ঈশ্বরগঞ্জ উপজেলার রাজিবপুর ইউনিয়নের উজানচর নওপাড়া (সীমারবুক) গ্রাম থেকে কিশোরীর মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

পুলিশ বলছে, নিহতের পরিচয় শনাক্তে তার আঙুলের ছাপ ও ডিএনএ নমুনা সংরক্ষণ করা হবে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পুলিশ জানায়, সকালে নদে মাছ ধরতে যান গ্রামের রাজিব হোসেন ও ইসলাম উদ্দিন। নদের কাছে যেতেই মরদেহটি নিয়ে একদল শেয়াল ও কুকুরকে টানাটানি করতে দেখেন তারা। ততক্ষণে মরদেহটির গলা ও বুকের বেশ কিছু অংশ এবং ডান পায়ের কিছু অংশ ছিড়ে খায় শেয়াল-কুকুরের দল। মরদেহ উদ্ধারের খবর পেয়ে আশপাশের লোকজনও ভীড় করলেও স্থানীয়দের কেউ ওই কিশোরীকে চিনতে পারেননি। পরে ঈশ্বরগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে সুরতহাল শেষে মরদেহটি থানায় নিয়ে যায়।

পুলিশ জানায়, ওই কিশোরীর আনুমানিক বয়স ১২ বছর। মরদেহটি গলিত অবস্থায় থাকায় এবং শেয়াল-কুকুরে টেনে হিঁচড়ে খেয়ে ফেলায় সুরতহালে তেমন কিছু পাওয়া যায়নি।

রাজিবপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল আলী ফকির বলেন, হয়তো কোথাও থেকে লাশটি ভেসে এসেছে। মরদেহটি গলে গেছে। চেহারা দেখে চেনার কোনো উপায় নেই।

ঈশ্বরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত র্কমকর্তা (ওসি) পিএসএম মোস্তাছিনুর রহমান বলেন, অজ্ঞাত পরিচয় কিশোরীর মরদেহের বেশ কিছু অংশ শেয়াল-কুকুরে খেয়ে ফেলেছে। লাশটির পরিচয় শনাক্তে আঙুলের ছাপ ও ডিএনএ নমুনা সংরক্ষণ করতে পিবিআইকে ডাকা হয়েছে।

তিনি জানান, এ ঘটনায় থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করা হবে। কিশোরীর মৃত্যুর সঠিক কারণ জানতে মরদেহটি ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.