ভিক্ষুকের মাসিক আয় ৭৫ হাজার রুপি, আছে ৭০ লাখ রুপির ২ ফ্ল্যাট

0
39
ভরত জৈন- সংগৃহীত ছবি

সমাজের অবহেলিত, অসহায় ও দরিদ্র মানুষ কোনো উপায় না পেয়ে জীবিকার তাগিদে সাধারণত ভিক্ষা করেন। সমাজে তাদেরকে ভালো চোখে দেখা না হলেও সবার অগোচরে কোনোরকম খেয়ে-পরে তাদের দিন চলে যায়। তবে সেই ভিক্ষুক যদি হন লাখপতি বা কোটিপতি তাহলে সবার চোখ কপালে উঠতে বাধ্য! এসব ভিক্ষুক ভাল সরকারি বা বেসরকারি কর্মীর থেকে অনেক বেশি আয় করেন। বিলাসবহুল জীবনযাপনও করেন।

ভারতের তেমন এক জন ‘ধনী’ ভিক্ষুক হলেন ভরত জৈন। সর্বভারতীয় সংবাদমাধ্যমের বেশ কয়েকটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, ভরতই দেশের সবচেয়ে ‘ধনী’ ভিক্ষুক। তিনি মূলত মুম্বইয়ের প্যারেল এলাকাতে ভিক্ষা করেন।

আনন্দবাজার পত্রিকার খবরে বলা হয়, ঊনপঞ্চাশ বছর বয়সী ভরতের মাসিক আয় ৭৫ হাজার রুপির বেশি। শুধু তাই নয়, অ্যাপার্টমেন্ট বাসায় দু’টি ফ্ল্যাটও আছে তার। যার এক একটির দাম ৭০ লাখ রুপি। বাবা, দুই ভাই, স্ত্রী এবং দুই ছেলে নিয়ে ভরতের সংসার। তার একটি দোকান আছে। ওই দোকান ভাড়া দিয়ে মাসে ১০ হাজার টাকা পান তিনি।

শুধু ভরতই নন, এই তালিকায় রয়েছেন কলকাতার লক্ষ্মী দাসও। ১৯৬৪ সাল থেকে ভিক্ষা শুরু করেন লক্ষ্মী। তখন তার বয়স মাত্র ১৬ বছর। পঞ্চাশ বছরের বেশি ভিক্ষা করেই অর্থ সংগ্রহ করছেন। একটি রিপোর্টে দাবি করা হয়েছে, লক্ষ্মীর মাসিক আয় ৩০ হাজার টাকা। ব্যাঙ্কে বিপুল টাকা গচ্ছিত রয়েছে তার।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে