ভারত দেখিয়ে দিল, কারা ‘বস’

0
164
নিজের ইউটিউব চ্যানেলে ভারতকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন শোয়েব আখতার। ছবি: এএফপি
ভারতই টি-টোয়েন্টির সেরা দল। বাংলাদেশের বিপক্ষে তারা দেখিয়ে দিয়েছে, কে সেরা। নিজের ইউটিউব চ্যানেলের সর্বশেষ ভিডিওতে এভাবেই ভারতের শ্রেষ্ঠত্ব মেনে নিয়েছেন সাবেক পাকিস্তানি পেস তারকা শোয়েব আখতার।

সিরিজে পিছিয়ে থেকেও টানা দুই ম্যাচ জিতে বাংলাদেশকে টি-টোয়েন্টিতে পরাস্ত করেছে ভারত। আর এই অর্জনের পেছনে সবচেয়ে বেশি অবদান, ব্যাট হাতে অধিনায়ক রোহিত শর্মা আর বল হাতে দীপক চাহারের। প্রশংসাবাণীতে ভাসছেন এই দুজন। রোহিত-চাহারের গুণগ্রাহীর তালিকায় এবার যুক্ত হয়েছেন ভারতের চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের সাবেক পেস তারকা শোয়েব আখতার।

রোহিতের ব্যাট করার ধরন ও দলকে উদ্দীপ্ত করার ক্ষমতা দেখে মুগ্ধ হয়ে গিয়েছেন শোয়েব আখতার। নিজের ইউটিউব চ্যানেলে রোহিতকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন তিনি, ‘যদিও ভারত প্রথম ম্যাচ হেরে গিয়েছিল, রোহিত শর্মার অনবদ্য ব্যাটিংয়ের ওপর ভর করে দ্বিতীয় ম্যাচে জিতে তাঁরা সিরিজে দুর্দান্তভাবে ফিরে আসে। রোহিত একজন অসামান্য প্রতিভা। সে যখন চায় তখনই রান করতে পারে।’

সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে ৪৩ বলে ৬ চার ও ৬ ছক্কায় ৮৫ রান করে ফিরেছেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। তাতেই সিরিজে ফিরে এসেছিল ভারত। ‘ছক্কাবাজ’ রোহিতের ৪৩ বলে ৮৫ রানের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি বাংলাদেশ।

ওদিকে গোটা সিরিজেই দুর্দান্ত বোলিং করা চাহার শেষ টি-টোয়েন্টিতে ইনিংসের শুরুতেই বাংলাদেশকে নাড়িয়ে দিয়েছিলেন। নিজের প্রথম ওভারেই ফিরিয়েছিলেন লিটন দাস আর সৌম্য সরকারকে। সে ধাক্কা সামলে বাংলাদেশ যখনই জয়ের স্বপ্ন দেখা শুরু করেছে, তখনই বাংলাদেশকে আবারও ধাক্কা দিয়েছেন এই চাহার, মোহাম্মদ মিঠুনকে ফিরিয়ে। মোহাম্মদ নাঈমের সঙ্গে মিঠুন গড়েছিলেন ৯৮ রানের জুটি। এই জুটিকে ঠিক ওই সময় না ভাঙলে ভারতের হাত থেকে ম্যাচটা বেরিয়েই যেত।

তবে আসল চমকটা জমিয়ে রেখেছিলেন ইনিংসের শেষ ওভারের জন্য। আগের ওভারেই শফিউলকে ফেরানো চাহার শেষ ওভারের প্রথম দুই বলে আউট করলেন বাংলাদেশের শেষ দুই ব্যাটসম্যান আমিনুল ইসলাম ও মোস্তাফিজুর রহমানকে। ব্যস, হয়ে গেল হ্যাটট্রিক! আর তাতেই আন্তর্জাতিক টি-টোয়েন্টির ইতিহাসের সবচেয়ে সেরা বোলিং পরিসংখ্যানটা হয়ে গেল তাঁর। ৩.২ ওভার বল করে মাত্র ৭ রান দিয়ে হাফ ডজন উইকেট তুলে নিয়ে সিরিজ উপহার দিয়েছেন ভারতকে।

চাহারের বোলিংয়েও মুগ্ধ শোয়েব, ‘বেশ ভালো একজন বোলার ও। মিডিয়াম পেসের সঙ্গে চমৎকারভাবে সিম মেশাতে পারে ও। নিজের সামর্থ্য ও দেখিয়ে দিয়েছে তৃতীয় টি-টোয়েন্টিতে, হ্যাটট্রিক করার মাধ্যমে।’

ওদিকে টি-টোয়েন্টিতে ভারতের শ্রেষ্ঠত্ব মেনে নিয়েছেন শোয়েব, ‘ভারত দেখিয়ে দিয়েছে, এ ধরনের ক্রিকেটে কারা “বস”। আমি ভেবেছিলাম তৃতীয় ম্যাচটা উত্তেজনাপূর্ণ হবে। কিন্তু বাংলাদেশের চেয়ে এই ম্যাচে ভারত বেশ ভালো দল ছিল। তবে বাংলাদেশকেও অভিনন্দন, তাঁরা যথেষ্ট উদ্দীপ্ত ছিল গোটা সিরিজে। ভুলবেন না, বাংলাদেশ কোনো সাধারণ দল নয়, তাঁরা কোনো দলের সামনে অসহায় আত্মসমর্পণ করে না।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে