ভারতে ফেরত পাঠানো হচ্ছে প্রেমের টানে আসা সেই গৃহবধূকে

0
195
সীমান্তে বাসিন্দাদের সঙ্গে শনিবার কথা বলেন বিজিবি সদস্যরা।

প্রেমের টানে বাংলাদেশে চলে আসা ভারতীয় সেই গৃহবধূকে তার নিজ দেশে পাঠানোর সিদ্ধান্ত হয়েছে; ফেরত আনা হচ্ছে ভারতীয়দের হাতে আটক বাংলাদেশি যুবকও।

বুধবার সকাল ১০টার দিকে সিলেটের জৈন্তাপুর সীমান্তবর্তী টিপরাখলায় ক্যাম্প পর্যায়ে বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বিজিবি ও ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী- বিএসএফের মধ্যে এক পতাকা বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত হয়।

১৯ বিজিবির জৈন্তাপুর ক্যাম্পের কমান্ডার আব্দুল কাদির এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, বৈঠকে সীমান্ত পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে দুইপক্ষ সম্মত হয়েছে। এক্ষেত্রে ভারতীয় গৃহবধূকে ফেরত দেওয়ার বিপরীতে খাসিয়াদের ধরে নিয়ে যাওয়া বাংলাদেশি যুবক ও গরু ফেরতের সিদ্ধান্ত হয়।

কয়েকদিন নিখোঁজ থাকলেও এরই মধ্যে সন্ধান পাওয়া গেছে ভারতীয় খাসিয়া গৃহবধূ কারেংশু খাসিয়ার। মৌলভীবাজারের জুড়ি উপজেলা থেকে তাকে আটক করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন জৈন্তাপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শ্যামল বনিক।

স্থানীয় সূত্র জানায়, সীমান্তের ওপারের এসপিটিলার হেওয়াই বস্তির বাসিন্দা চংকর খাসিয়ার স্ত্রী পাঁচ সন্তানের জননী কারেংশু প্রেমিক ফিরোজ মিয়ার হাত ধরে গত শনিবার বাংলাদেশে চলে আসেন। জৈন্তাপুর এলাকার সীমান্তবর্তী টিপরাখলা গ্রামের হারিছ উদ্দিনের ছেলে ফিরোজ মিয়াও বিবাহিত।

ভারতীয় গৃহবধূর বাংলাদেশে পালিয়ে আসা নিয়ে উত্তেজনাকর পরিস্থিতিতে রোববার বিজিবি-বিএসএফ পতাকা বৈঠকে ভারতীয় গৃহবধূকে ফেরত দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু ফিরোজ ও কারেংশু আত্মগোপনে চলে যাওয়ায় বিজিবি ওই গৃহবধূকে ফেরত দিতে পারেনি।

এ অবস্থায় মঙ্গলবার দুপুরে ভারতীয় খাসিয়ারা বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ করে স্থানীয় যুবক আব্দুন নুরকে ধরে নিয়ে যায়। পাশাপাশি স্থানীয় হাওর থেকে শতাধিক গরু সীমান্তের ওপারে নিয়ে যায়। উদ্ভূত পরিস্থিতিতে বুধবার দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনীর ক্যাম্প পর্যায়ে পতাকা অনুষ্ঠিত হয়।

বিজিবির জৈন্তাপুর ক্যাম্প কমান্ডার আব্দুল কাদির বলেন, ইতোমধ্যে আমরা সেই নারীর সন্ধান পেয়েছি। পুলিশ তাকে জৈন্তাপুরে নিয়ে আসছে। এখানে আসার পর পতাকা বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী টিপরাখলা সীমান্ত দিয়ে তাকে বিএসএফের কাছে হস্তান্তর করা হবে। পাশাপাশি বাংলাদেশি যুবক ও গরু ফেরত আনা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে