ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ ‘সেরা’ ব্যাটসম্যানটিকেই পাচ্ছে না

0
136
ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে অন্য সাব্বিরকেই দেখা যায় সব সময়। ছবি : এএফপি

ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে আজ মাঠে নামছে বাংলাদেশ। এ সংস্করণে ভারতের বিপক্ষে সেরা ব্যাটসম্যানটিকে দেশে রেখে গেছেন নির্বাচকেরা

ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় ব্যাটিং ভরসা কে?

মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ—ঘুরেফিরে এসব নামই উঠে আসে। আশ্চর্য হলেও সত্যি, ভারতের বিপক্ষে সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যান তাঁদের কেউ-ই নন। প্রতিবেশী দেশটির বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে কার্যকর ব্যাটসম্যানটি সাব্বির রহমান!

ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশ এ সংস্করণে ৮ ম্যাচ খেলেছে। সাব্বির এর মধ্যে সব ম্যাচেই খেলেননি। ছয় ম্যাচে দেখা গেছে তাঁকে। এ ছয় ম্যাচে বাংলাদেশের হয়ে তাঁর রানসংখ্যা সবচেয়ে বেশি। যদিও সাব্বিরের ধারাবাহিকতা নিয়ে প্রশ্নটা মোটেই নতুন নয়।

ভারতের বিপক্ষে এ ছয় ম্যাচে সাব্বিরের সংগ্রহ ২৩৬ রান। গড়টাও বেশ দর্শনীয়, ৪৭.২০। বল খেলেছেন ১৭৫টি, টি-টোয়েন্টিতে বাংলাদেশের হয়ে অশ্বিন-বুমরা-নেহরা-যুজবেন্দ্রদের সবচেয়ে বেশি তিনিই খেলেছেন। আছে এক ফিফটি, সব মিলিয়ে স্ট্রাইক রেট ১৩৪.৮৫। রান তোলায় দ্বিতীয় মুশফিকুর রহিমের সংগ্রহ তাঁর থেকে বেশ কম, ১৬৫। তৃতীয় মাহমুদউল্লাহ তুলেছেন ১৩২ রান। তার চেয়েও চমকপ্রদ তথ্য হলো মুশফিক-মাহমুদউল্লাহরা আট ম্যাচেই খেলেছেন।

ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে সাব্বির সর্বপ্রথম নেমেছিলেন ২০১৬ সালে, এশিয়া কাপে। মিরপুরের সে ম্যাচে হার্দিক পান্ডিয়ার বলে মহেন্দ্র সিং ধোনির হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে ৩২ বলে দুই চার ও ছক্কায় ৪৪ রান করেছিলেন তিনি। তাঁর ব্যাটে চড়েই বাংলাদেশ এক শ পেরোতে পেরেছিল। যদিও শেষমেশ ৪৫ রানে হারতে হয় সাব্বিরদের। এশিয়া কাপের ফাইনালেও একই কাহিনি। ব্যাট হাতে ব্যর্থ সাকিব-মুশফিক-তামিমরা, কিন্তু সাব্বির যথারীতি রানের মুখ দেখেছেন। সে ম্যাচে ২৯ বলে ৩২ রান করে অপরাজিত থাকেন তিনি। তাঁর খেলা ছয় ম্যাচের মধ্যে শুধু এ ম্যাচেই সাব্বিরকে আউট করতে পারেননি ভারতের বোলাররা।

ওয়ার্ল্ড টি-টোয়েন্টিতে সেই ১ রানে হেরে যাওয়া ম্যাচটাতেও সুরেশ রায়নার বলে মহেন্দ্র সিং ধোনির হাতে ক্যাচ দেওয়ার আগে ১৫ বলে ২৬ রানের এক ইনিংস খেলে তামিম-সাকিবদের সঙ্গে জয়ের রাস্তা দেখিয়ে দিয়েছিলেন সাব্বিরই। যদিও শেষ মুহূর্তে সে রাস্তায় চলা হয়নি মুশফিক-মাহমুদউল্লাহর। গত বছর ত্রিদেশীয় নিদাহাস ট্রফিতে ভারতের বিপক্ষে তিনটি ম্যাচ খেলার সুযোগ পায় বাংলাদেশ। প্রথম ম্যাচে জয়দেব উনাদকাটের বলে দীনেশ কার্তিকের হাতে উইকেটের পেছনে ক্যাচ দেওয়ার আগে ২৬ বলে ৩০ করে যান সাব্বির। পরের ম্যাচে শার্দুল ঠাকুরের বলে বোল্ড হওয়ার আগে করে যান ২৭ রান, ২৩ বল খেলে।

তবে ভারতের বিপক্ষে সাব্বির ব্যাট হাতে সবচেয়ে সফল ছিলেন সবশেষ ম্যাচ নিদাহাস ট্রফির ফাইনালে। ওয়ান ডাউনে নেমে ৫০ বলে ৭৭ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলেছিলেন সেদিন কলম্বোয়। সাব্বিরের ব্যাটে চড়েই ১৬৬ রান তোলে বাংলাদেশ। শেষে দীনেশ কার্তিক-ঝড়ে ফাইনাল জেতা হয়নি বাংলাদেশের।

দলে সাকিব-তামিম নেই, স্বাভাবিকভাবেই দলের প্রত্যেক সদস্যর ওপর ভালো করার চাপ আরও বেড়ে গিয়েছে। এ পরিস্থিতি ভারতের বিপক্ষে টি-টোয়েন্টিতে সবচেয়ে সফল ব্যাটসম্যানটিও কিন্তু দলে নেই—সাব্বির! অবশ্য এ নিয়ে আক্ষেপের সুযোগও নেই। ধারাবাহিকতা—শব্দটি সাব্বিরের ব্যাটিং অভিধানে যে এখনো যোগ হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে