বিশ্বব্যাংক থেকে ৩০ কোটি ডলার ঋণ নিচ্ছে বাংলাদেশ

0
53
বিশ্বব্যাংক

বিশ্বব্যাংকের কাছ থেকে ৩০ কোটি ডলারের ঋণ নিতে চুক্তি করেছে পরিকল্পনা কমিশনের অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি)। দেশের সকল সিটি কর্পোরেশন ও পৌর এলাকাসহ শহরাঞ্চলের মানুষদের কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবেলা, পুনরুদ্ধার এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের সংকটাবস্থা মোকাবেলায় স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা অর্জনে এ অর্থ ব্যয় করা হবে।

বিশ্বব্যাংক এবং ইআরডি পৃথক সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ তথ্য জানিয়েছে। রোববার রাজধানীর শেরে বাংলা নগরস্থ পরিকল্পনা কমিশনে এই চুক্তি স্বাক্ষর হয়।

বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে ঋণ চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন ইআরডির সচিব শরিফা খান এবং বিশ্ব ব্যাংকের পক্ষে স্বাক্ষর করেন ঢাকা অফিসের কান্ট্রি ডিরেক্টটর মার্সি মিয়াং টেম্বোন।

কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবেলা ও পুনরুদ্ধার প্রকল্পের আওতায় এ ঋণ পাঁচ বছরের গ্রেস পিরিয়ডসহ মেয়াদ ৩০ বছর, যার সুদহার সোয়া ১ শতাংশ। সাথে পৌনে ১ শতাংশ হারে ফি বছর সার্ভিস চার্জ গুণতে হবে।

বিশ্বব্যাংক বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, এ প্রকল্প ১০ সিটি কর্পোরেশন ও ৩২৯টি পৌরসভাকে মহামারি মোকাবেলা এবং ভবিষ্যতে এ ধরনের সংকট মোকাবেলায় সক্ষমতা তৈরি করতে সহায়তা করবে। এ প্রকল্পের আওতায় শহরের ভবনগুলো সৌর প্যানেল স্থাপন, জ্বালানি সাশ্রয়ী ব্যবস্থা প্রচলন এবং জনসমাগম স্থানে, বিশেষত বাজার, কবরস্থান ও অফিস পাড়ায় হাত ধোয়ার সুবিধা, মহিলাদের জন্য পৃথক ব্যবস্থাসহ টয়লেট স্থাপন করা হবে।

এছাড়া পৌর স্বাস্থ্য ক্লিনিকে প্রতিবন্ধী মানুষের সহজ গমনাগমন, কোভিড-১৯ মহামারি, লিঙ্গ সহিংসতা এবং জয়বায়ু পরিবর্তনজনিত ঝুঁকি বিষয়ে সচেতনা তৈরিতে সহায়তা করবে। এ প্রকল্পের আওতায় তিন কোটি ৯৯ লাখ মানুষ উপকৃত হবে বলেও আশা করছে বিশ্বব্যাংক।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.