বার্সায় জাভির প্রথম হার, লিভারপুলের রুদ্ধশ্বাস জয়

0
42
বার্সার কোচ হিসেবে জাভি প্রথম হারের মুখ দেখলেন ছবি: রয়টার্স

লিভারপুলকে জিতিয়েছেন অরিগি

লিভারপুলকে জিতিয়েছেন অরিগি 
ছবি: রয়টার্স

দিনের আগের ম্যাচে লিগশীর্ষে থাকা চেলসি ৩-২ ব্যবধানে হেরেছে ওয়েস্ট হামের মাঠে। এরপর নিজেদের ম্যাচে এই জয়ে কিছুক্ষণের জন্য হলেও লিগশীর্ষে উঠে গেছে লিভারপুল। ১৫ ম্যাচ শেষে এখন লিভারপুলের পয়েন্ট ৩৪, দুইয়ে থাকা চেলসির ৩৩। তবে এই মুহূর্তে পয়েন্ট তালিকার তিন নম্বরে থাকা ম্যানচেস্টার সিটি (১৪ ম্যাচে ৩৩ পয়েন্ট) খেলছে ওয়াটফোর্ডের মাঠে। সেই ম্যাচে সিটি জিতলে অবশ্য লিভারপুলকে দুইয়ে ও চেলসিকে তিনে ঠেলে সিটিই উঠে যাবে লিগের শীর্ষে।

আপাতত সেসব নিয়ে ক্লপ খুব একটা ভাবছেন বলে মনে হয় না। চেলসি হেরে যাওয়ার পর তাঁর নিজের দলের আজ জয় পাওয়া খুব দরকার ছিল, সেটি লিভারপুল করেছে কী রুদ্ধশ্বাস উত্তেজনা ছড়িয়ে! ম্যাচে গোল একটিই হয়েছে, কিন্তু পুরোটা সময় মনে হয়েছে, এই বুঝি এখনই লিভারপুল গোল পেল! ৬৭ শতাংশ বলের দখল রাখা লিভারপুল ম্যাচে শট নিয়েছে ১৭টি, যেখানে উলভসের শট মাত্র ৩টি। কিন্তু শেষ আঁচড়টাই হচ্ছিল না লিভারপুলের।

লিভারপুলের জার্সিতে দারুণ ছন্দে থাকা দিয়োগো জোতা দুই অর্ধে দারুণ দুটি সুযোগ নষ্ট করেছেন, এর মধ্যে দ্বিতীয়ার্ধে যেভাবে গোল মিস করেছেন, সেটি তো অবিশ্বাস্য! প্রথমার্ধের শেষদিকে গোলের খুব কাছ থেকে হেড নিয়েও বল পোস্টে রাখতে পারেননি জোতা, প্রথমার্ধের সহজতম সুযোগ সেটিই। তবে দ্বিতীয়ার্ধের সহজতম সুযোগের তুলনায় সেটিও কিছুই নয়!

মেম্ফিসরা আজ কিছুই করতে পারেননি

মেম্ফিসরা আজ কিছুই করতে পারেননি
ছবি: রয়টার্স

৬০ মিনিটে লিভারপুল রক্ষণ থেকে ভেসে আসা লম্বা পাসের নিয়ন্ত্রণ নিতে গিয়ে বক্সের বাইরে বাঁ দিকে ভজকট পাকিয়ে ফেলেন উলভসের ডিফেন্ডার রোমান সাইস ও গোলকিপার জোসে সা। সেই সুযোগে বল নিয়ে গোলপোস্টের দিকে ছুটতে থাকেন জোতা। কিন্তু তিনি পোস্টের কাছে যেতে যেতে উলভসের দুই ডিফেন্ডার গোললাইনে চলে আসেন। তবু গোল করার দারুণ সুযোগ ছিল জোতার, কিন্তু তিনি শটটা মারলেন উলভস অধিনায়ক ও ডিফেন্ডার কনর কোডির গায়েই!

এরপর সালাহ, মানেদের অনেক চেষ্টা যখন বারবার উলভস রক্ষণে বাধা পাচ্ছিল, মনে হচ্ছিল, এবারও বুঝি চেলসির পয়েন্ট হারানোর সুযোগটা লিভারপুল নিতে পারছে না। কিন্তু লিভারপুলের যে একজন ডিভক অরিগি আছেন! লিভারপুলে ‘সুপার সাব’ হিসেবে নিজের পরিচিতিকে অনেক উঁচুতে নিয়ে যাওয়া বেলজিয়ান স্ট্রাইকার দ্বিতীয়ার্ধের মাঝমাঝিতে বদলি নেমেছেন। এর যোগ করা পাঁচ মিনিট সময়ের চতুর্থ মিনিটে বল জড়িয়ে লিভারপুলকে ভাসিয়েছেন উচ্ছ্বাসে।

এবারও রক্ষণ থেকে ভেসে আসা বল, দারুণ নিয়ন্ত্রণে গায়ে লেগে থাকা ডিফেন্ডারকে ছিটকে ফেলেন মো সালাহ। বক্সে ঢুকে পাস বাড়ান অরিগির দিকে। চকিত ঘুরে দারুণ শটে বল জালে জড়িয়ে দেন লিভারপুল সমর্থকদের প্রিয় ডিভক। ক্লপ লিভারপুলের কোচ হওয়ার পর ম্যাচের ৯০ মিনিটের পর এ নিয়ে ১৩টি ম্যাচ জেতানো গোল পেল লিভারপুল, যা অন্য যেকোনো দলের চেয়ে বেশি!

হুয়ানমির গোলের পর বেতিসের খেলোয়াড়দের উচ্ছ্বাস

হুয়ানমির গোলের পর বেতিসের খেলোয়াড়দের উচ্ছ্বাস 
ছবি: রয়টার্স

ক্যাম্প ন্যু-তে বার্সেলোনা সমর্থকেরা হয়তো মনে মনে ভাবছিলেন, বার্সার যদি অরিগির মতো কেউ থাকত। বেতিসের বিপক্ষে আজ প্রথমার্ধে বার্সার ফুটবলটা হয়েছে ম্যাড়মেড়ে। ১১ মিনিটের মধ্যে ফিলিপ কুতিনিওর দুটি শট ছাড়া তেমন সাড়া ফেলতে পারেনি বার্সা। দ্বিতীয়ার্ধে কিছুটা ঘুরে দাঁড়িয়েছে জাভির দল। তবে বলের দখল বেশ ভালো থাকলেও প্রতিপক্ষ পোস্টের সামনে গিয়ে খেই হারাচ্ছিলেন দেম্বেলে-মেম্ফিসরা।

উল্টো দ্বিতীয়ার্ধে পাল্টা আক্রমণে বেশ কয়েকবার ভুগেছে বার্সা। ৫২ মিনিটেই বার্সা গোলকিপার মার্ক-আন্দ্রে টের স্টেগেনের ভুলের সুযোগে বেতিসের হুয়ানমি একবার বল জালে জড়িয়েছিলেন, কিন্তু অফসাইডে গোল বাতিল হয়। তবে ৭৯ মিনিটে আর বাঁচতে পারেনি বার্সা। পাল্টা আক্রমণে উঠে বল জালে জড়ান সেই হুয়ানমিই!

শেষ পর্যন্ত সেই গোলই নিশ্চিত করে দিল, বার্সার দায়িত্বে চতুর্থ ম্যাচেই প্রথম হারের মুখ দেখছেন জাভি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে