বাজে মন্তব্যের প্রতিবাদ, তরুণীর সামনে তরুণকে পিটিয়ে হত্যা

0
212
নিহত আরিফুলের বাবা শহিদুল ইসলামের আহাজারি। ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল, ২৯ অক্টোবর।

রাজধানীর হাজারীবাগে বাজে মন্তব্য করার প্রতিবাদ করায় তরুণীর সামনে তরুণকে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার রাত আটটার দিকে হাজারীবাগের রায়েরবাজার এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই তরুণের নাম আরিফুল ইসলাম (২২)। তিনি মোহাম্মদপুর সরকারি কলেজের উচ্চমাধ্যমিকের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। বরিশালের বাকেরগঞ্জ উপজেলার শহিদুল ইসলামের ছেলে তিনি। ঢাকার লালবাগের পাশে পরিবারের সঙ্গে থাকতেন আরিফুল। তাঁর বাবা ইসলামপুরে কাপড়ের দোকানে চাকরি করেন।

নিহত ওই তরুণের বন্ধু সানজিদা আকতার বলেন, ‘রায়েরবাজার সড়কের ঢালে আমরা দাঁড়িয়ে দুজন কথাবার্তা বলছিলাম। এ সময় দুই থেকে তিনজন যুবক আমাদের উদ্দেশে খারাপ মন্তব্য করেন। এতে সজল প্রতিবাদ করতে গেলে তাঁদের সঙ্গে কথা-কাটাকাটি হয়। পরে সজল একজনকে চড় মারে। কিছুক্ষণ পর একসঙ্গে ১০ থেকে ১২ জন যুবক এসে সজলকে এলোপাতাড়ি মারধর করে ও বাঁশ দিয়ে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। দ্রুত তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় হাসপাতালে, পরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে রাত সোয়া ৯টার দিকে তাঁর মৃত্যু হয়।’

এ ঘটনার খবর পেয়ে নিহত আরিফুলের বাবা শহিদুল ইসলাম হাসপাতালে এসে ছেলের লাশ দেখতে পান।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির (ইনচার্জ) পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া বলেন, ময়নাতদন্তের জন্য ওই তরুণের লাশ হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে।

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে