বাংলাদেশের লোকদের চরিত্র কি রোহিংগ্যাদের চরিত্র থেকে খুব আলাদা? -তসলিমা নাসরিন

0
442
তসলিমা নাসরিন।

মিয়ানমার থেকে শরণার্থী হিসেবে আসা রোহিঙ্গাদের নিয়ে এই মুহূর্তে বিপদেই আছে বাংলাদেশ। শরণার্থীরা জড়িয়ে পড়েছে মাদক ব্যবসা, সন্ত্রাস, খুনসহ নানা অপরাধে। তাদের অত্যাচারে কক্সবাজার-টেকনাফ-উখিয়ার স্থায়ী বাসিন্দারা অতিষ্ঠ। রোহিঙ্গারা নিজ দেশে ফিরতে রাজী না হলেও বাংলাদেশিরা এখন তাদের তাড়াতে পারলে যেন বাঁচে। এমতাবস্থায় রোহিঙ্গা সমস্যা নিয়ে নিজের মত ব্যক্ত করলেন প্রখ্যাত নারীবাদী লেখিকা তসলিমা নাসরিন।

সোশ্যাল সাইট ফেসবুকে তার ভেরিফায়েড পেইজে তসলিমা লিখেছেন, ‘রোহিঙ্গাদের ভাষা শুনে চেহারা দেখে কাপড় চোপড় দেখে তো মনে হয় তারা যত না বার্মার লোক, তার চেয়ে বেশি বাংলাদেশের লোক। ১১ লক্ষ অশিক্ষিত লোক, তার মধ্যে অনেকেই বর্বর, চোর, ডাকাত, চোরাকারবারি, খুনী, ধর্ষক, ধর্মান্ধ, সন্ত্রাসী। বাংলাদেশে এমন লোকের কি আদৌ অভাব? বাংলাদেশের লোকদের চরিত্র কি রোহিঙ্গাদের চরিত্র থেকে খুব আলাদা?বাংলাদেশে যদি বাস করতে চায় এরা, করুক। মূলস্রোতে মিশে যাক। ১৫ কোটি মানুষের দেশে ১১ লক্ষ এমন কোনো বড় সংখ্যা নয়।। পৃথিবীতে সবারই অধিকার আছে যেখানে খুশি যাওয়ার, যেখানে খুশি বাস করার।’

‘জার্মানি যখন ১১ লক্ষ অশিক্ষিত আরব মুসলমানদের আশ্রয় দিয়েছে, বাংলাদেশের লোকেরা খুশিতে হাততালি দেয়নি? দিয়েছে। এখন রোহিঙ্গাদের প্রশ্নে জার্মানির মতো হতে পারছে না কেন? অন্যে উদার হলে ঠিক আছে, নিজের উদার হওয়ার দরকার নেই? রোহিঙ্গাদের তুচ্ছ তাচ্ছিল্য করছো কেন বাপু। তোমরা যখন ইউরোপ আমেরিকায় গিয়ে আশ্রয় ভিক্ষে চাও, তোমরাও তখন এক একটা রোহিঙ্গা। তোমরা যখন আরব দেশে শ্রমিকের কাজ করতে যাও, তোমাদেরও রোহিঙ্গাদের মতো দেখায়। তোমরা যখন রোহিঙ্গাদের গালি দাও, তোমরা আসলে নিজেদেরই গালি দাও।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.