বদলে গেছে পরীর মনের রং

0
213
পরীমনি।

পরীর বাসা বলে কথা! অন্দরের সজ্জা হওয়া চাই ‘সেই রকম’। মনের মতো করে নিজেই সাজাচ্ছেন তিনি। এক মাস ধরে চলছে, তবু কাজই ফুরোচ্ছে না। খাটটা কেমন হবে, কিংবা সোফাটা। দেয়ালের কী রং হবে, সবটাই তিনি ঠিক করছেন। মজার কথা হচ্ছে, শোবার ঘরের দেয়ালের রং নয়বার বদলাতে হয়েছে।

নতুন একটি বাসায় উঠেছেন পরীমনি। ঘরের দেয়ালের মতো তাঁর মনের রংও ক্ষণে ক্ষণে বদলায়। যাঁর সঙ্গে বিয়ের কথা হয়েছিল, ভুল-বোঝাবুঝিতে সেই কথা ফিরিয়ে নিয়েছিলেন তিনি। নতুন বাসার মতো সেই সম্পর্কে নতুন সম্ভাবনা উঁকি দিচ্ছে এখন। কী হয়েছিল? পরীমনি বললেন, ‘বলতে পারেন, নতুন করে আবার শুরু করার মধ্যে আছি। একটা বিরতি নিয়েছিলাম। দুজনের আবেগ-অনুভূতি যেন একটু বদলায়। ভালোবাসাকে সবকিছুর ওপরে দেখতে চেয়েছিলাম। বিরতির দিনগুলোতে কেউ কারও সম্পর্কে অসম্মানজনক আচরণ করিনি। চোখের আড়াল হলেও মনের আড়াল হতে পারিনি। আমার সবকিছুতেই তাঁর স্মৃতি ভেসে ওঠে। সে কারণে সম্পর্কটা ছেদ করতে পারছি না।’

এ রকম আবেগ যাঁর, তাঁর ভালোবাসা কি তবে দেয়াল তুলে রেখেছিল এত দিন? পরীমনি বলেন, ‘না, তবে পর্দা আছে একটা—হালকা, নরম, মিষ্টি একটা পর্দা।’

সিয়ামের সঙ্গে করা ‘বিশ্বসুন্দরী’ ছবিটা ১৩ ডিসেম্বর মুক্তির কথা রয়েছে। একটি গানও প্রকাশিত হয়েছে। সেটি তেমন আলোচিত হয়নি। তবে পরীর আশা, পরের গানগুলো থেকে একটা না একটা হিট হবেই। শিল্পী হিসেবে কাজটি পুরোপুরি সন্তুষ্ট করতে পারেনি তাঁকে। তিনি মনে করেন, ‘শিল্পীর সন্তুষ্টি থাকতে নেই। থাকতে হয় ক্ষুধা। স্বপ্নজাল করার পর ক্ষুধা আরও বেড়েছে।’

পরীর মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছে ‘বিশ্বসুন্দরী’। ছবিটি মুক্তির পর দর্শকের কাছে পৌঁছালেই তিনি মাথা থেকে একে ঝেড়ে ফেলবেন। এরপর নতুন ছবির কাজ। জানালেন, ভালো কাজের জন্য অপেক্ষা করতে চান, ধৈর্য ধরতে চান। শোনালেন নতুন আরেক খবর। তাঁর পরিবারের মতো হয়ে যাওয়া প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান টিএম ফিল্মসের সঙ্গে নাকি বড় ধামাকা নিয়ে হাজির হবেন তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে