প্রয়োজন ছাড়া সিজার, ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে রিট

0
312
হাইকোর্ট

প্রয়োজন ছাড়া লক্ষ্মীপুরের এক প্রসূতির অস্ত্রোপচারের (সিজার) ঘটনায় নোয়াখালীর ট্রাস্ট ওয়ান হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে ২৫ লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে হাইকোর্টে রিট করা হয়েছে। রিটে ওই নারীর শারীরিক, মানসিক ও আর্থিক ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়েছে। হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় লক্ষ্মীপুরের চন্দ্রগঞ্জ থানার গোরারবাগ গ্রামের রিমা সুলতানা নিপার পক্ষে বৃহস্পতিবার সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী জে আর খান রবিন রিটটি দায়ের করেন। নিপা ওই গ্রামের জামাল হোসেন বিপুর মেয়ে।

রিটে ক্ষতিপূরণের পাশাপাশি সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে বেআইনি ও অবহেলার কারণে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণেরও নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে। রিটে বিবাদীরা হলেন- স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণ সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের ব্যবস্থাপনা পরিচালক, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজি), ট্রাস্ট ওয়ান হাসপাতালের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ইতি আক্তার, সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক, ডিউটি ডাক্তার ও অপারেশন থিয়েটারে কর্তব্যরত সহকারী।

রিটে বলা হয়, রিমা সুলতানা নিপা গত ৮ জুন প্রসব বেদনা নিয়ে নোয়াখালীর ট্রাস্ট ওয়ান হাসপাতালে ভর্তি হন। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তখন জানায়, রোগীর সিজার বাধ্যতামূলক। পরদিন চিকিৎসকের পরামর্শে অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়। যদিও আল্ট্রাসনোগ্রাম প্রতিবেদন অনুযায়ী প্রসূতির জটিলতা ছিল না, এমনকি অস্ত্রোপচারেরও প্রয়োজন ছিল না।

গত ১২ জুন প্রসূতিকে হাসপাতাল থেকে ছাড়পত্র দিলে নিপা বাড়ি ফিরে যান। এরপর তার শারীরিক অবস্থা গুরুতর হয়ে পড়লে ১৪ জুন তাকে আবার একই হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তার সেলাইয়ের জায়গায় ক্ষত দেখা দেয়। এ পর্যায়ে চিকিৎসকরা নিপার সেলাইয়ে ক্ষতের বিষয়টি স্বীকার করেন। তখন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ও সংশ্লিষ্ট চিকিৎসককে বিষয়টি জানানো হলেও তারা কোনো পদক্ষেপ নেননি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে