নুসরাত হত্যা: দুই বান্ধবীকে আদালতে তলব

0
146
নুসরাত জাহান রাফি। ফাইল ছবি

নুসরাত জাহান রাফি হত্যা মামলার তদন্ত কর্মকর্তার জেরা টানা আট দিন গড়িয়ে শেষ হয়েছে।

ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনালের বিচারক আগামী রোববার নুসরাতের দুই বান্ধবীকে আদালতে তলব এবং আসামি শাহাদাত হোসেন শামীমের মোবাইল ফোনের কথোপকথন প্রকাশ্য আদালতে বাজিয়ে শোনানোর আদেশ দিয়েছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে পুলিশের বিশেষ নিরাপত্তা বেষ্টনীর মধ্য দিয়ে নুসরাত হত্যার ১৬ আসামিকে বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে হাজির করা হয়। দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পিবিআই পরিদর্শক শাহ আলমের অসমাপ্ত জেরা শুরু হয়। বিকেল পর্যন্ত তদন্ত কর্মকর্তার জেরার পর আদালত জেরা সমাপ্ত বলে ঘোষণা করেন। এ সময় আসামি পক্ষের পিটিশনের শুনানি শুরু করেন বিচারক। নুসরাতের দুই বান্ধবী নাসরিন সুলতানা ফুর্তি ও নিশাত সুলতানার তলবের বিষয়ে আদালতে শুনানি হয়। আসামি পক্ষের আইনজীবী ফরিদ উদ্দিন নয়ন এ দু’জনের জবানবন্দি মামলার স্বার্থে ফের গ্রহণের যুক্তি তুলে ধরেন।

বাদী পক্ষের আইনজীবী শাহজাহান সাজু এর বিরোধিতা করে বক্তব্য দেন। বিচারক শুনানি শেষে রোববার তাদের আদালতে হাজির করার জন্য তদন্ত কর্মকর্তা শাহ আলমকে নির্দেশ দেন। বিবাদী পক্ষের আইনজীবীরা পিবিআই প্রধানের তলবের বিষয়ে তাদের পিটিশনের শুনানি গ্রহণের আবেদন করেন। তখন আদালত আগামী রোববার এ বিষয়ে শুনানির দিন ধার্য করেন। এ সময় বিবাদী পক্ষে আরও বেশ কয়েকটি পিটিশন জমা দেওয়া হয়। এর মধ্যে ঘটনার দিন ৬ এপ্রিল আসামি শাহাদাত হোসেনের মোবাইলে বিভিন্ন জনের সঙ্গে কথোপকথনের অডিও রেকর্ড প্রকাশ্য আদালতে বাজিয়ে শোনানোর আদেশ দেন আদালত। আসামি পক্ষের আইনজীবীরা নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় এই অডিও রেকর্ড সংগ্রহ করতে চাইলে তা তাদের দেওয়ার জন্য তদন্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়। আদালত আসামি পক্ষের অপর কয়েকটি পিটিশন নামঞ্জুর করেন।

পিপি হাফেজ আহাম্মদ জানান, তদন্ত কর্মকর্তার জেরার মাধ্যমে নুসরাত হত্যা মামলার একটি পর্যায় শেষ হয়েছে। রোববার নুসরাতের দুই বান্ধবীর সাক্ষ্য গ্রহণ করা হবে। তাদের নির্ধারিত কয়েকটি প্রশ্নের মাধ্যমে জেরা করবেন আসামি পক্ষের আইনজীবী। এতে বেশি সময়ের প্রয়োজন হবে না। এই প্রক্রিয়া শেষ হলে বাদী ও আসামি পক্ষের আইনজীবীদের যুক্তিতর্ক উপস্থাপনের দিন ধার্য করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে