নাগরিক সংশোধনী বিল এনআরসিরই অন্য পিঠ: মমতা

0
185
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রয়টার্স ফাইল ছবি

বিরোধীদের তুমুল প্রতিবাদের মুখে আজ সোমবার সংসদে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (ক্যাব) পেশ করা হয়েছে। আর ঠিক সেই দিনই মোদি সরকারের বিরুদ্ধে ফের বিভাজনের অভিযোগ তুলেছেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এ বিষয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বলেন, ‘আজ যে বিলটি সংসদে পেশ হয়েছে, তা আসলে জাতীয় নাগরিক পঞ্জির (এনআরসি) অন্য পিঠ। ক্যাব বলুন, আর এনআরসি বলুন, কয়েনের এপিঠ আর ওপিঠ। আমরা সবাই নাগরিক, সবাই ভোট দিই। সবারই রেশন কার্ড আছে। কারও স্কুল সার্টিফিকেট আছে, কারও কাজ করার সার্টিফিকেট আছে, কারও জমির পাট্টা আছে। কিছু না কিছু তো আছে। তা হলে আবার নাগরিকত্ব নিয়ে কিসের প্রশ্ন?’

এনআরসির প্রতিবাদে সবাইকে এক জোট হওয়ার আহ্বান জানিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেছেন, ‘আসুন, জোট বাঁধি। একটা লোককেও দেশ থেকে তাড়ানো চলবে না। নো এনআরসি। কোনো বিভাজন হবে না, নো ডিভাইড অ্যান্ড রুল।’ ক্যাব ও এনআরসি নিয়ে আক্রমণের পাশাপাশি মোদি সরকারের বিরুদ্ধে বেহাল অর্থনীতি ও কর্মসংস্থানের অভাব নিয়েও মমতা সোচ্চার হয়েছেন।

আসামে এনআরসির চূড়ান্ত তালিকা প্রসঙ্গে মমতা বলেছেন, যে ১৯ লাখ নাম আসামের এনআরসি থেকে বাদ পড়েছে, তার মধ্যে ১৪ লাখ হিন্দু বাঙালি, ১ লাখ বিহারি। বহু গুর্খার নামও বাদ পড়েছে।

কেন্দ্রীয় সরকারের উদ্দেশে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছেন, ‘আগে খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান দিন। জনতাকে ভাগাভাগি করবেন না।’

এদিকে ধর্মতলার রানি রাসমণি অ্যাভিনিউয়ে এক সমাবেশে জাতীয় নাগরিক পঞ্জি (এনআরসি), জাতীয় জনসংখ্যা পঞ্জি (এনপিআর) ও নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের (ক্যাব) বিরোধিতায় সোচ্চার হয়েছেন সিপিআইয়ের নেতা কানহাইয়া কুমার, পদত্যাগী আইএএস কান্নন গোপীনাথন, সিপিআই (এম-এল) লিবারেশনের পলিটব্যুরো সদস্য কবিতা কৃষ্ণন, ফরওয়ার্ড ব্লক বিধায়ক আলী ইমরান রামজ প্রমুখ।

এনআরসিবিরোধী যুক্ত মঞ্চের এই সমাবেশ থেকে আগামী দিনের বিস্তারিত আন্দোলনের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়েছে। সুবোধ মল্লিক স্কয়ার থেকে একটি মিছিল যায় সমাবেশস্থলে। রাজ্যের ১২টি জেলা ঘুরে ২ হাজার ৫০০ কিলোমিটারের বেশি পথে ‘পাহাড় থেকে সাগর’ যাত্রা করে এনআরসি, এনপিআর এবং সিএবির বিরুদ্ধে প্রচার চালিয়েছে যুক্ত মঞ্চ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে