‘দিল্লি সিগারেটের মতোই ক্ষতিকর’

0
141

দিল্লির দূষণকে সিগারেটের ধোঁয়ার সঙ্গে তুলনা করেছেন কংগ্রেসের সংসদ সদস্য শশী থারুর।

রোববার এক টুইটবার্তায় তিনি বলেছেন, কুতুব মিনার যেন সিগারেটের ধোঁয়ার জালে বন্দি। একইসঙ্গে তিনি একটি প্রতীকী ছবিও পোস্ট করেন।

সেখানে তিনি কুতুব মিনারের পাশেই সিগারেটের ছবি পোস্ট করে লেখেন, যারা সিগারেটে সমর্পিত প্রাণ,তারা একবার দিল্লির বাতাসের স্বাদ নিয়ে যান। তিনি সিগারেটের প্যাকেটের সতর্কবাণীর আদলে ছবির মাধ্যমে পাঠিয়েছেন সতর্কবার্তা। লিখেছেন, সিগারেটের মতোই দিল্লি স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকর। খবর এনডিটিভির।

দীপাবলির বাজিতে দিল্লির দূষণ ভয়াবহ আকার ধারণ করেছে। বাতাস দূষিত হওয়ায় শুক্রবার কেন্দ্রীয় দূষণ নিয়ন্ত্রণ পরিষদ সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে।

টুইটারে শশী থারুরের দেওয়া পোস্ট

মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল অবশ্য অভিযোগের আঙুল তুলেছেন পড়শি রাজ্য হরিয়ানা ও পাঞ্জাবের বিরুদ্ধে। তার দাবি, দুই রাজ্যের কৃষক ক্ষেত পরিষ্কার করতে ফসল পুড়িয়েছে। তারই ধোঁয়ায় দিল্লির বাতাস বিষাক্ত হয়েছে।

দূষণের কারণে আগামী ৫ নভেম্বর পর্যন্ত দিল্লির স্কুল বন্ধ রাখার কথাও ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। দূষণের মাত্রা অতিরিক্ত বেড়ে যাওয়ায় নির্মাণ কাজও ৫ নভেম্বর পর্যন্ত বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে পরিবেশ দূষণ (প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণ) কর্তৃপক্ষ।

কর্তৃপক্ষের দাবি, জানুয়ারির পর এই প্রথম দিল্লিতে দূষণের মাত্রা স্বাভাবিক মাত্রা ছাড়াল।

দূষণ রোধে ক্রিসমাসের সময়েও বাজি-পটকা না ফাটানোর নির্দেশ দিয়েছে কর্তৃপক্ষ।

শ্বাসগ্রহণের সময় বিষাক্ত বাতাস ঢুকে যাতে ফুসফুসের ক্ষতি করতে না পারে তার জন্য সবাইকে মাস্ক পরে বাইরে বেরোনোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

এক সরকারি ঘোষণায় জানানো হয়েছে, দূষণের মাত্রা ক্রমশ বাড়তে থাকলে একসময় নিয়ন্ত্রণ করতে হবে শহরের যান চলাচল। রাজধানীতে কোনো ট্রাক ঢুকতে দেওয়া হবে না।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে