দশ মিনিটে হ্যাটট্রিক স্টার্লিংয়ের, গোল বন্যা স্পার্সদের

0
237
ছবি: গোল

চ্যাম্পিয়নস লিগে ইংল্যান্ডের রাত ছিল গোলময়। দুই ইংলিশ ক্লাব ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এবং টটেনহ্যাম প্রতিপক্ষকে গোল বন্যায় ভাসিয়েছে। ম্যানসিটি ৫-১ গোলে হারিয়েছে আটালান্টাকে। অন্য ম্যাচে টটেনহ্যাম ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে রেড স্টার বেলগ্রেডকে। ম্যানসিটির রাহিম স্টার্লিং, সার্জিও আগুয়েরোর পায়ে ফুটেছিল গোলের ফুল। স্পার্সদের হ্যারি কেন এবং সন হিউয়েন মিন করেছেন জোড়া গোল।

প্রথমে ২৮ মিনিটে গোল খেয়ে ঘরের মাঠে পিছিয়ে পড়ে ম্যানসিটি। এরপর পেপ গার্দিওয়ালার ম্যানসিটি ম্যাচের মাঝের ৩৫ মিনিট একের পর এক গোল করেছেন। বাকি সময় বল চালাচালিই করেছেন তারা। ম্যানসিটির আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার সার্জিও আগুয়েরো ৩৪ মিনিটের মাথায় প্রথম গোল করে দলকে সমতায় ফেরান। এরপর ৩৮ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে ২-১ ব্যবধানে এগিয়ে দেন ম্যানসিটিকে। পরের সময়টা স্টার্লিংয়ের।

ইংলিশ ফরোয়ার্ড দ্বিতীয়ার্ধের ৫৮ মিনিটে প্রথম গোল করেন। দলকে লিড এনে দেন ৩-১ গোলের। এরপর ৬৪ মিনিটে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন এই তারকা। ম্যাচের ৬৮ মিনিটে পূর্ণ করেন নিজের হ্যাটট্রিক। স্টার্লিংয়ের এটি দ্বিতীয় হ্যাটট্রিক। তাদের গোলে বড় জয়ের সঙ্গে গ্রুপ ‘সি’ থেকে চ্যাম্পিয়নস লিগের শেষ ষোলোর পথ অনেকটাই পরিষ্কার করে নিয়েছে পেপ গার্দিওয়ালার শিষ্যরা।

ছবি: গোল

দিনের অন্য ম্যাচে গেল আসরে চ্যাম্পিয়নস লিগের রানার্স আপ টটেনহ্যাম হটস্পার বড় জয় পেয়েছে রেড স্টার বেলগ্রেডের বিপক্ষে। ম্যাচের সাত মিনিটে হ্যারি কেনের গোলে এগিয়ে যায় স্পার্সরা। এশিয়ার তারকা ফুটবলার সন হিউয়েন মিন ১৬ মিনিটে লিড ২-০ করেন। প্রথমার্ধেই দলকে ৩-০ ব্যবধানে এগিয়ে দেন দক্ষিণ কোরিয়ার এই টটেনহ্যাম ফুটবলার। এরপর দ্বিতীয়ার্ধের ৫৭ মিনিটে এরিক লামেলা বেলগ্রেডের জালে বল পাঠান। টটেনহ্যাম ৭২ মিনিটে হ্যারি কেনের গোলে এগিয়ে যায় ৫-০ গোলে।

ম্যাচের তখনও ঢের সময় বাকি। মাউরোসিও পচেত্তিনোর দল আরও বড় জয়ের সুযোগ তৈরি করেছে। কিন্তু শেষ পর্যন্ত আর ব্যবধান বাড়াতে পারেনি। চ্যাম্পিয়নস লিগের গ্রুপ পর্বে আগের ম্যাচে বায়ার্ন মিউনিখের বিপক্ষে ৭-২ গোলে হারে স্পার্সরা। পচেত্তিনোর চাকরির সুতোয় তাই টান পড়ে গিয়েছিল। দারুণ এই জয়ে আবার নতুন আশা দেখতে শুরু করেছেন এই আর্জেন্টাইন কোচ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.