দম আটকানো লড়াইয়ে সোনার হাসি জাহানারাদের

0
166
সোনার পদক জয়ের উল্লাস বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলের।

এসএ গেমস ক্রিকেটে মেয়েদের ফাইনালে শ্রীলঙ্কাকে ২ রান হারিয়ে সোনার পদক জিতল বাংলাদেশ নারী দল। ভীষণ স্নায়ুচাপের এ ম্যাচে দুর্দান্ত বল করেছেন বাংলাদেশের বোলাররা

সোনার পদক জয়ের লড়াই। সেখানে আগে ব্যাটিংয়ে নেমে সংগ্রহটা হতাশার। এক শ রানও তোলা যায়নি। ৮ উইকেটে ৯১ রান তুলেছিল মেয়েরা। সোনা জিতে ইতিহাস গড়ার লড়াইয়ে টিকে থাকতে স্বাভাবিকভাবেই বোলারদের দিকে তাকিয়ে ছিলেন বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীরা। সালমা খাতুন-নাহিদা আক্তাররা নিজেদের সামর্থ্য নিংড়ে বল করেই ম্যাচটা টেনে নিয়ে গিয়েছিলেন শেষ ওভার পর্যন্ত। টান টান উত্তেজনার এ ম্যাচে শ্রীলঙ্কাকে শেষ পর্যন্ত ৯ উইকেটে ৮৯ রানে আটকে সোনা জিতেছে বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দল।

পোখারায় এসএ গেমস ক্রিকেটে মেয়েদের ফাইনাল আজ শ্রীলঙ্কাকে ২ রানে হারিয়েছে বাংলাদেশ। এ আসরে ক্রিকেটে ইভেন্টে দেশকে এবারই প্রথম সোনার পদক এনে দিলেন বাংলাদেশের মেয়েরা। তবে ব্যাটিংটা খারাপ হওয়ায় প্রথম ইনিংস শেষে সোনা জয়ের আশা প্রায় মিলিয়ে যেতে বসেছিল। মৃতপ্রায় সে আশাটা জাগিয়েছেন বোলাররাই। শুরু থেকেই লঙ্কান ব্যাটারদের ওপর চাপ বিস্তার করেছিলেন জাহানারা আলমরা। প্রথম ৬ ওভার শেষে ৩ উইকেটে ১৫ রান তুলেছিল শ্রীলঙ্কা। ভালো শুরু পেয়ে যাওয়ার পর বোলাররা চাপটা ধরে রাখায় শেষ দিকে ৯১ রান টপকানো কঠিন হয়ে পড়ে লঙ্কানদের জন্য।

দুর্দান্ত বল করে জয় তুলে নেওয়ার পর ক্রিকেটাররা।

জয়ের জন্য শেষ ৩০ বলে ২৮ রান দরকার ছিল শ্রীলঙ্কার। হাতে ছিল ৫ উইকেট। আগের দুই ওভারে মাত্র ৩ রান দেওয়া অধিনায়ক সালমা ১৬তম ওভারে মাত্র ৪ রান দেন। ১৮তম ওভারে এসে একটি উইকেটও তুলে নেন নারী দলের এ অধিনায়ক। শেষ ম্যাচ শেষ দুই ওভারে নেমে আসে ১১ রানের সমীকরণে। ১৯তম ওভারে নাহিদা আক্তার একটি উইকেট তুলে নেওয়ার পাশাপাশি ৪ রান দেওয়ায় শেষ ওভারে ৭ রানের সমীকরণে পড়ে যায় দুই দল। লঙ্কান মেয়েদের হাতে ছিল ৩ উইকেট। ম্যাচ তখন দুলছে পেন্ডুলামের মতো। কার ভাগ্যে জুটবে সোনার পদক?

আগের ৩ ওভারে ১৩ রান দেওয়া পেসার জাহানারা আসেন শেষ ওভার করতে। প্রথম ৩ বলে মাত্র ২ রান দেন জাহানারা। অর্থাৎ শেষ ৩ বলে শ্রীলঙ্কার দরকার ছিল ৫ রান। চতুর্থ বলে বিপজ্জনক লিহিনি আপসারাকে (২৫) তুলে নেন জাহানারা। শেষ বলে ৩ রান দরকার ছিল লঙ্কানদের। কিন্তু জাহানারা কোনো রান না দিয়ে উল্টো উইকেট নিয়ে সোনার পদক জয় নিশ্চিত করেন বাংলাদেশের।

বাংলাদেশের হয়ে সবচেয়ে ভালো বল করেছেন নাহিদা আক্তার। ৪ ওভারে মাত্র ৯ রান দিয়ে ২ উইকেট নেন তিনি। সালমা ১২ রান দিয়ে নেন ১ উইকেট।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে