ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেসের এমপি সুস্মিতার গাড়িতে হামলা

0
84
গত ১৪ সেপ্টেম্বর আগরতলায় সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী সুস্মিতা দেব, ছবি: এএনআই

পশ্চিমবঙ্গের পরে এবার ত্রিপুরায় তৃণমূলের শক্তি বাড়াতে চাচ্ছেন দলটির নেত্রী ও পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ২০২৩ সালের রাজ্য বিধানসভা নির্বাচন সামনে রেখে ত্রিপুরায় নতুনভাবে সক্রিয় হয়েছে তৃণমূল। সুস্মিতা দেব দলটির অন্যতম সংগঠক হিসেবে ত্রিপুরায় কাজ করছেন। তিনি কিছুদিন আগে কংগ্রেস ছেড়ে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন।

আক্রান্ত হওয়ার পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন সুস্মিতা দেব

আক্রান্ত হওয়ার পরে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন সুস্মিতা দেব
ছবি: সংগৃহীত

করোনার সংক্রমণ বৃদ্ধির আশঙ্কার কথা জানিয়ে গত সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝিতে তৃণমূলকে মাসখানেকের জন্য ত্রিপুরায় প্রচার বন্ধ রাখতে বলেছিল স্থানীয় প্রশাসন। সেই সময় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাতিজা ও তৃণমূলের সাধারণ সম্পাদক অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রচারে যাওয়ার কথা থাকলেও তা স্থগিত হয়ে যায়। তৃণমূল এখন নতুন করে অভিষেকের প্রচারণা নিয়ে পরিকল্পনা করতে শুরু করেছে। বৃহস্পতিবার থেকে এই লক্ষ্যে ত্রিপুরার রাজধানী আগরতলায় গণসংযোগ শুরু করেছেন দলটির নেতা-কর্মীরা।

নির্বাচনী প্রচারের কৌশল নিয়ে শুক্রবার আইপ্যাকের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক চলাকালে হামলা হয় বলে জানিয়েছেন সুস্মিতা দেবী। তিনি বলেছেন, কেন্দ্রের আধা সামরিক বাহিনীর সামনেই একদল ছেলে মুখ না ঢেকেই তাঁদের ওপরে হামলা চালান। তৃণমূলের অভিযোগ, ত্রিপুরায় প্রায় নিয়মিতই তাদের কর্মীদের ওপর হামলা হচ্ছে। হামলায় অনেকেই আহত হয়েছেন। এ ছাড়া কর্মীদের বাড়িঘর, দোকানপাটও ভাঙচুর করা হচ্ছে।

গত কয়েক দিনে তৃণমূল কংগ্রেসের স্টিয়ারিং কমিটির সদস্য শান্তনু সাহাও হামলার শিকার হয়েছেন। কয়েক সপ্তাহ আগে তৃণমূলের কর্মী শুভঙ্কর দেব ও দুলাল দাস আক্রান্ত হন। বিজেপি অবশ্য সব ঘটনাকেই তৃণমূলের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব বলে নিজেদের দায় এড়াতে চাইছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে