তুরস্কের সড়কে দুই দুর্ঘটনায় ৩২ জন নিহত

0
54
বাসটির গতি এত দ্রুত ছিল এর ধাক্কায় সেখানে থাকা একটি অ্যাম্বুলেন্স দুমড়ে-মুচড়ে গেছে, ছবি: রয়টার্স

তুরস্কে পৃথক দুটি সড়ক দুর্ঘটনায় অন্তত ৩২ জন নিহত হয়েছেন। এর মধ্যে একটি ঘটনা ঘটেছে সড়ক দুর্ঘটনাস্থলে উদ্ধার তৎপরতা চালানোর সময়। অপর একটি বাস দ্রুতগতিতে এসে চাপা দেয়। এতে অন্তত ১৬ জন নিহত হন। একইসঙ্গে দুই ঘটনায় অন্তত ৫১ জন আহত হয়েছেন।

স্থানীয় সময় শনিবার সকালে তুরস্কের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর গাজিয়ান্তেপে প্রথম দুর্ঘটনাটি ঘটে। দ্বিতীয় দুর্ঘটনাটি ঘটে এর কয়েক ঘণ্টা পর সেখান থেকে ২৫০ কিলোমিটার দূরের শহর মারদিনে।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, গাজিয়ান্তেপের ঘটনায় নিহতদের মধ্যে অগ্নিনির্বাপক কর্মী, উদ্ধারকর্মী ও সাংবাদিক রয়েছেন। মারদিনের দুর্ঘটনাটি ঘটেছে মানুষের ভিড়ের মধ্যে একটি লরি উঠে যাওয়ার মধ্য দিয়ে। তবে  তাৎক্ষণিক এই দুই ঘটনার মধ্যে কোনো যোগসাজশ পাওয়া যায়নি।

গাজিয়ান্তেপে প্রথমে একটি গাড়ি দুর্ঘটনায় পড়ে। তখন সেখানে উদ্ধারতৎপরতা চালাতে ছুটে আসেন অগ্নিনির্বাপক ও জরুরি বিভাগের উদ্ধারকর্মীরা। পাশাপাশি ওই দুর্ঘটনার খবর সংগ্রহ করতে সেখানে সাংবাদিকেরাও উপস্থিত হন। ঠিক এমন সময়ই সেখানে দ্রুতগতির একটি বাস উপস্থিত লোকদের জটলার মধ্যে উঠে যায় এবং প্রায় ২০০ মিটার দূরে গিয়ে উল্টে যায়

দুর্ঘটনার একটি ছবিতে দেখা গেছে, বাসটির গতি এত দ্রুত ছিল এর ধাক্কায় সেখানে থাকা একটি অ্যাম্বুলেন্স দুমড়ে-মুচড়ে গেছে।

গাজিয়ান্তেপের গভর্নর এক টুইটে জানিয়েছেন, সেখানকার বাসচাপায় ১৬ জন নিহত ব্যক্তির মধ্যে তিনজন অগ্নিনির্বাপক কর্মী, দুজন জরুরি উদ্ধারকর্মী ও দুজন সাংবাদিক রয়েছেন।

তুরস্কের সাংবাদিক ইউনিয়নও ওই ঘটনায় দুজন সাংবাদিক নিহত হওয়ার খবর নিশ্চিত করেছে। এখানকার দুর্ঘটনায় আহত মানুষের সংখ্যা ২১ জন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.