ঢাকা থেকে ফিরে গিয়ে সুস্মিতার উচ্ছ্বাস

0
166
‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০১৯’ শিরিন আক্তার শিলাকে মুকুট পরিয়ে দেন সাবেক মিস ইউনিভার্স ও বলিউড তারকা সুস্মিতা সেন।

‘মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ ২০১৯’ হয়েছেন ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জের মেয়ে শিরিন আক্তার শিলা। গত বুধবার রাতে রাজধানীর বসুন্ধরা কনভেনশনের নবরাত্রি মিলনায়তনে জমকালো অনুষ্ঠানে তাঁর মাথায় হীরার মুকুট পরিয়ে দেন সাবেক মিস ইউনিভার্স ও বলিউড তারকা সুস্মিতা সেন। সেদিন সকালে তিনি ঢাকায় আসেন। মুম্বাই ফিরে যান পরদিন বৃহস্পতিবার। ফিরে গিয়ে এই অনুষ্ঠানের উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করেছেন।

সুস্মিতা সেন ইনস্টাগ্রামে লিখেছেন, ‘চমৎকার একটা রাত ছিল। শিরিন আক্তার শিলা “মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশ” হয়েছেন। এবারই প্রথম মিস ইউনিভার্স মঞ্চে থাকবে বাংলাদেশ। আর বাংলাদেশের প্রতিনিধিকে মুকুট পরিয়ে দিতে পেরে আমি অনেক সম্মানিত হয়েছি। মিস ইউনিভার্স বাংলাদেশের ইতিহাসের অংশ হতে পেরে আমি গর্বিত।’

পাশাপাশি বাংলাদেশের আতিথেয়তায় মুগ্ধ হয়েছেন সুস্মিতা সেন।

এর আগে ঢাকায় এসে সুস্মিতা সেন বলেন, ‘আমি এই ইভেন্টে যোগ দিতে পেরে অত্যন্ত আনন্দিত। এটি স্মরণীয় অনুষ্ঠান, কারণ আমরা মিস ইউনিভার্সে বাংলাদেশের প্রথম প্রতিনিধি পাঠিয়ে ইতিহাস তৈরি করতে যাচ্ছি। বিজয়ী আর সব অংশগ্রহণকারীকে আন্তরিক অভিনন্দন।’

আগেই জানা গেছে, আগামী ১৯ ডিসেম্বর যুক্তরাষ্ট্রে অনুষ্ঠিত হবে ‘মিস ইউনিভার্স’ প্রতিযোগিতার মূল আসর।

শিরিন আক্তার শিলা এখন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিজ্ঞান বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্রী। তিনি বলেছেন, ‘আমার জন্য এ বিজয় খুবই আলাদা। কারণ, বাংলাদেশে মিস ইউনিভার্স এবারই প্রথম অনুষ্ঠিত হলো। সেই প্রতিযোগিতায় আমি প্রথম হয়েছি। এই বিজয় মুকুট আমার মাথায় পরিয়ে দিয়েছেন সাবেক মিস ইউনিভার্স সুস্মিতা সেন।’

সুস্মিতা সেনের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ পেয়েছেন শিরিন আক্তার শিলা। বললেন, ‘খুবই রোমাঞ্চিত হয়েছি। তিনি আমাদের সবাইকে জড়িয়ে ধরে আদর করেছেন। খুব সুন্দর বাংলায় বলছিলেন, “সোনা, তোমরা ভয় পেয়ো না। দেশের প্রতিনিধি হওয়ার মতো অনেক কিছু আছে তোমাদের।” আর আলাদা করে আমাকে বললেন, “তোমার মাতৃভাষা বাংলা, বাংলাতেই কথা বলবে। বাংলাতেই তুমি তোমার ইমোশন সবচেয়ে ভালোভাবে প্রকাশ করতে পারবে।”’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে