ঠোঁটকাঠির ঠাটবাট

0
587
লাল সব সময়ের জন্য। আর এখন লাল ব্যবহারের জন্য তো কোনো অজুহাত লাগে না। মডেল: মৌসুম, সাজ: পারসোনা, ছবি: নকশা লাল সব সময়ের জন্য। আর এখন লাল ব্যবহারের জন্য তো কোনো অজুহাত লাগে না। মডেল: মৌসুম।

চেহারার মলিন ভাব কাটাতে ঠোঁটকাঠিই (লিপস্টিক) যথেষ্ট। কখনো কখনো মন ভালো করতেও এর জুড়ি মেলা ভার। আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন রূপবিশেষজ্ঞ ববি ব্রাউন মনে করেন, চেহারায় যখন কোনো মেকআপ থাকবে না, মানানসই লিপস্টিকটি খুঁজে বের করুন। আর কিছুই লাগবে না।

মেরুন রাতে মানায় বেশি। তবে যাঁরা একটু গাঢ় রং ব্যবহারে অভ্যস্ত, তাঁরা দিনের যেকোনো সময়ই ব্যবহার করতে পারেন

মার্কিন অভিনেত্রী অড্রে হেপবার্নও ভক্ত ছিলেন লিপস্টিকের। তিনি বিশ্বাস করতেন ম্যানিকিউরে, অতিরিক্ত পোশাক সজ্জায়, বিশ্বাস করতেন অবসর সময়ে নিজেকে ফিটফাট করে তোলা আর লিপস্টিক লাগানোয়।

গ্লসি লাল লিপস্টিক রাতের দাওয়াতের জন্য মানানসই

১৭৭০ সালে এই লিপস্টিক নিষিদ্ধ হয়ে গিয়েছিল ব্রিটিশ পার্লামেন্টে। বলা হয়েছিল, নারীরা দোষী হিসেবে সাব্যস্ত হবে, যদি পুরুষদের বিয়েতে প্রলুব্ধ করতে লিপস্টিক ব্যবহার করে। এটি অনেকটা জাদুবিদ্যার মতনই (সূত্র: ফ্যাক্ট রিপাবলিক)।

মভের এই শেড রাতের দাওয়াতের জন্যই তোলা থাক

বোঝা তো গেল, লিপস্টিকের ক্ষমতা কত। তবে নারীরা কখনোই ঠোঁটকাঠিকে নেতিবাচক হিসেবে নেননি। লিপস্টিক সব সময়ই নারীদের একান্তই ব্যক্তিগত পছন্দের সাজ অনুষঙ্গ হিসেবে ছিল, আছে, থাকবে।

গোলাপির এমন উজ্জ্বল শেড সকাল, বিকেল বা রাতে মানিয়ে যাবে। তবে যদি বাইরে টইটই করে ঘুরতে হয়, খুব সকাল সকাল এই রং এড়িয়ে চলুন। অনুষ্ঠান বা কাজ চার দেয়ালের মধ্যে হলে মন্দ লাগবে না।

লিপস্টিক আবিষ্কারের পর থেকেই এর জনপ্রিয়তা তুঙ্গে। সাজের অন্য সব অনুষঙ্গের মতো লিপস্টিকেও প্রতিবছর, প্রতি মাসে দেখা যাচ্ছে নানা পরিবর্তন। সব সময় চলতি ধারাগুলো আসে আন্তর্জাতিক অঙ্গন থেকে। এ বছর পুরোটা সময় চলবে লাল লিপস্টিকের রাজত্বে। লাল রঙের মধ্যে আছে, এমন লিপস্টিক থাকবে বছরজুড়ে। ২০২০ সালে প্যাস্টেল শেড বেশি চলবে বলে জানান পারসোনার পরিচালক নুজহাত খান। তবে লালের বাইরে মভ রঙের লিপস্টিকও জনপ্রিয়তায় এগিয়ে আছে। লাল, মেরুন, ওয়াইন রেড, প্লাম, হট পিঙ্ক, কমলা, বাদামি, বাঙ্গি ইত্যাদি রং সারা দিন মন ভালো রাখবে। রূপচর্চার ধারায় আবার চকচকে (গ্লসি) ভাব চলে এসেছে। গ্লিটারও আছে। তবে গ্লিটার সব বয়স ও জায়গার জন্য নয় বলে জানালেন নুজহাত খান। লাল লিপস্টিকের ওপর লাল রঙের গ্লিটার চমকাবে ভালো।

লিপস্টিকের নিয়মকানুন

ঠোঁটকাঠি ব্যবহারের আগে অধরোষ্ঠ প্রস্তুত করে নিন। যদি বিশেষ কোনো অনুষ্ঠানে অনেকক্ষণ রং ধরে রাখতে চান, প্রস্তুতির আটটি ধাপ অনুসরণ করলে লিপস্টিকের রং থাকবে ঠিকঠাক।

মৌসুমী

১. প্রথমে চিনি আর নারকেল তেল দিয়ে ঠোঁট হালকা মালিশ করে নিন। মরা চামড়া উঠে যাবে।

মৌসুমী

২. লিপজেল লাগিয়ে নিন। চলে যাবে খসখসে ভাব।

মৌসুমী

৩. ঠোঁটে প্রাইমার দিন। ঠোঁটকাঠির রং অনেকক্ষণ স্থায়ী হবে। রংটাও সঠিকভাবে ফুটে উঠবে।

মৌসুমী

৪. ফাউন্ডেশন লাগান।

মৌসুমী

৫. যে রং লাগাবেন, একই রঙের লিপ লাইনার দিয়ে ঠোঁটের চারপাশ এঁকে নিন। পাশাপাশি ঠোঁটের ভেতরের অংশটুকুও ভরে ফেলুন।

মৌসুমী

৬. এবার লিপস্টিক লাগান।

মৌসুমী

৭. লিপস্টিক লাগানোর পর টিস্যু পেপার দিয়ে হালকা চাপ দিন। টিস্যুর ওপর দিয়ে একটু পাউডার বুলিয়ে নিন ব্রাশের সাহায্যে।

মৌসুমী

৮. এবার আবার এক কোট লিপস্টিক লাগিয়ে ফেলুন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে