টেমস নদীর তীর থেকে পরিচালিত হচ্ছে বিএনপি: কাদের

0
138
অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন ওবায়দুল কাদের

লন্ডনের টেমস নদীর তীর থেকে আসা নির্দেশনা অনুযায়ী বিএনপির রাজনৈতিক কার্যক্রম পরিচালিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের কাদের।

রোববার বরিশাল বঙ্গবন্ধু উদ্যানে মহানগর আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন তিনি।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি পরিচালিত হচ্ছে লন্ডনের টেমস নদীর তীর থেকে। সেখান থেকে যে রকম নির্দেশনা আসে, এদেশে কিছু পুতুল সেভাবে নাচে।

তিনি বলেন, নেতিবাচক রাজনীতি করার কুফল হিসেবে এরইমধ্যে বিএনপির দুটি উইকেটের পতন হয়েছে। লেফটেন্যান্ট কর্নেল (অব.) মাহবুবুর রহমান ও মোর্শেদ আলী খান বিএনপি ছেড়েছেন। আরও অনেক উইকেটের পতন হবে তাদের। একদিন বিএনপির পরিণতি হবে মুসলিমলীগের মতো।

বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সম্মেলন উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য আমির হোসেন আমু।

ওবায়দুল কাদের দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, দেশ বাঁচাতে হলে শেখ হাসিনাকে বাঁচিয়ে রাখতে হবে, শেখ হাসিনাকে বাঁচাতে হলে আওয়ামীলীগ বাঁচাতে হবে। সাচ্চা ত্যাগী কর্মীদের কোণঠাসা করে রাখা হলে আওয়ামী লীগ বাঁচবে না।

সকলকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, দলের মধ্যে দল সৃষ্টি করবেন না, মশারির মধ্যে মশারি টানাবেন না। সুবিধাবাদীদের আওয়ামী লীগে প্রয়োজন নেই। আওয়ামী লীগের নিজস্ব যা আছে তাই যথেষ্ট।

তিনি বিএনপিকে ‘বাংলাদেশ নালিশ পার্টি’ আখ্যায়িত করে বলেন, তারা আন্দোলনে ব্যর্থ, নির্বাচনে ব্যর্থ, জনগণের হৃদয় অর্জনে ব্যর্থ। নয়াপল্টনে একজন আবাসিক প্রতিনিধি রেখেছে, যার কাজ হচ্ছে প্রতিদিন প্রেস ব্রিফিং করে নালিশ জানানো। দেশে নালিশ জানাতে জানাতে ব্যর্থ হয়ে এখন বিদেশে ঘুরে ঘুরে নালিশ করছে বিএনপি।

আমির হোসেন আমু লেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে হত্যার মাধ্যমে সকল ক্ষেত্রে দেশকে ৪০ বছর পিছিয়ে দেয়া হয়েছে। অপশক্তির কাজ হচ্ছে সারাজীবন ষড়যন্ত্র করে যাওয়া। এখনও অপশক্তির ষড়যন্ত্র চলছে। বিএনপি-জামাত হচ্ছে এদেশে অপশক্তির মুখচ্ছবি। তাদের ষড়যন্ত্র রুখে দিতে আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে।

সম্মেলনের দ্বিতীয় পর্বে অ্যাডভোকেট এ.কে.এম জাহাঙ্গীরকে সভাপতি এবং সিটি মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহকে সাধারণ সম্পাদক করে নগর আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়।

সদ্য সাবেক কমিটিতে এ.কে.এম জাহাঙ্গীর সাধারণ সম্পাদক এবং সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

মহানগর আওয়ামী লীগের সদ্য সাবেক সভাপতি গোলাম আব্বাস চৌধুরী দুলালের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে আরও বক্তব্য দেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ন সম্পাদক আব্দুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আফজাল হোসেন, আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক ড. শাম্মী, গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী কর্নেল (অব.) জাহিদ ফারুক শামীম, আওয়ামী লীগ নেতা গোলাম রাব্বানী চিনু প্রমুখ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে