টাকা না পাওয়ায় মাঠে দেরি করে গেলেন যুবরাজরা

0
217
টরন্টো ন্যাশনালসের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার যুবরাজ সিং। ছবি: গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি টুইটার পেজ
কানাডার গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগে পারিশ্রমিক বকেয়া থাকায় কালকের ম্যাচে নির্ধারিত সময়ে মাঠে নামতে চাননি দুই দলের খেলোয়াড়েরা। হোটেল থেকে দেরিতে মাঠে গিয়ে প্রতিবাদ জানায় তারা

 

খেলোয়াড়দের প্রতিবাদে কানাডায় গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগে কাল দ্বিতীয় রাউন্ডের একটি ম্যাচ দুই ঘণ্টা দেরিতে শুরু হয়েছে। ম্যাচটি ছিল টরন্টো ন্যাশনালস ও মন্ট্রিল টাইগার্সের মধ্যে। ব্রাম্পটনে টিম হোটেল থেকে নির্ধারিত সময়ে বাসে উঠে মাঠে যেতে আপত্তি জানিয়েছিল দুই দলের খেলোয়াড়েরাই। ক্রিকইনফো জানিয়েছে, পারিশ্রমিক বকেয়া থাকার জন্যই মাঠে যাওয়ার ব্যাপারে প্রতিবাদ জানায় দুই দলের খেলোয়াড়েরা।

টুর্নামেন্টের আয়োজকদের পক্ষ থেকে বিবৃতিতে বলা হয়, ‘বুধবার মন্ট্রিল টাইগার্স ও টরন্টো ন্যাশনালসের মধ্যে ম্যাচটি খেলোয়াড়, লিগ ও ফ্র্যাঞ্চাইজি মালিকদের মধ্যে ব্যবস্থাপনাগত সমস্যার জন্য শুরু হতে দেরি হয়।’ শুধু তাই নয়, এ ম্যাচের টিভি সম্প্রচারেও খেলোয়াড়দের প্রতিবাদ নিয়ে কিছু বলা হয়নি। গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি কানাডা কর্তৃপক্ষ টুইটারে যে বিবৃতি দিয়েছে সেখানেও খেলোয়াড়দের প্রতিবাদ নিয়ে কিছু বলা হয়নি। উল্টো টুইটারে সে অ্যাকাউন্ট থেকে বলা হয়, ‘কারিগরি ত্রুটির কারণে’ ম্যাচটি দেরিতে শুরু হয়েছে। ম্যাচ শুরু হওয়ার নির্ধারিত সময় ছিল দুপুর সাড়ে বারোটা। কিন্তু ম্যাচ শুরু হয়েছে দুপুর আড়াইটায়। সূত্র মারফত ক্রিকইনফো জানিয়েছে, খেলোয়াড়দের বহনকারী বাস হোটেল ছেড়েছে দুপুর ১টায়।

টরন্টো ন্যাশনালসের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ভারতের সাবেক ক্রিকেটার যুবরাজ সিং। ম্যাচটা তাদের জন্য ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ ছিল। প্লে অফ পর্বে যেতে জয়ের দরকার ছিল দলটির। এমন পরিস্থিতিতে প্রতিবাদ জানিয়ে ম্যাচ বর্জন করলে দলটির মৌসুম সেখানেই শেষ হয়ে যেত। কিন্তু পারিশ্রমিক আদায়ে ঝুঁকিটা নিতে কার্পণ্য করেনি তাঁরা। ক্রিকইনফো মনে করছে, খেলোয়াড়দের এ প্রতিবাদ শুধু দুটি দলের মধ্যেই সীমাবদ্ধ থাকবে না। সূত্র মারফত সংবাদমাধ্যমটি জানিয়েছে, অন্যান্য দলের খেলোয়াড়েরাও দল এবং লিগের মালিক বোম্বে স্পোর্টস লিমিটেডকে বলেছে, বকেয়া পারিশ্রমিক শোধ না করলে প্লে অফ পর্বে তারা মাঠে নামবে না। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক খেলোয়াড় ক্রিকইনফোকে বলেছেন, ‘পারিশ্রমিক না পাওয়া পর্যন্ত আমরা খেলব না।’

লিগের চুক্তিপত্র অনুযায়ী, খেলোয়াড়দের পারিশ্রমিকের ১০-১৫ শতাংশ টুর্নামেন্ট শুরুর আগেই পরিশোধ করার কথা দলগুলোর। প্রথম রাউন্ড শেষে পরের কিস্তিতে ৭৫ শতাংশ অর্থ শোধ করার কথা। সূত্র মারফত সংবাদমাধ্যমটি জেনেছে, সব দল মিলিয়ে বেশির ভাগ খেলোয়াড় এক কানা কড়িও পাননি। কানাডার গ্লোবাল টি-টোয়েন্টি লিগে পারিশ্রমিক নিয়ে ঝামেলা নতুন কিছু নয়। এর আগে কানাডার ক্রিকেটাররা তাদের ভিত্তি মূল্য কমানোয় প্রতিবাদ করেছিলেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে