জ্বালানির বর্ধিত দাম প্রত্যাহার দাবিতে শাহবাগে লাগাতার অবস্থান

0
51
জ্বালানি তেলের বর্ধিত দাম প্রত্যাহারের দাবিতে শনিবার সন্ধ্যা থেকে রাজধানীর শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে অবস্থান নিয়ে আছেন এই আন্দোলনকারীরা। ৭ আগস্ট, ঢাকা

গত শুক্রবার জ্বালানি তেলের দাম রেকর্ড পরিমাণে বাড়িয়েছে সরকার। ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ৩৪ টাকা বাড়িয়ে ১১৪ টাকা, পেট্রলের দাম ৪৪ টাকা বাড়িয়ে ১৩০ টাকা এবং অকটেনের দাম ৪৬ টাকা বাড়িয়ে ১৩৫ টাকা করা হয়েছে। জ্বালানির দাম বৃদ্ধির কারণে গতকাল বাসভাড়া বাড়ানো হয়েছে ১৬ থেকে ২২ শতাংশ পর্যন্ত। জ্বালানির দাম বৃদ্ধির প্রভাবে পণ্য পরিবহনেও খরচ বাড়ছে। এর প্রভাব পড়বে নিত্যপণ্য ও বিভিন্ন সেবার দামে। তাতে স্বল্প আয়ের মানুষের জীবন চালানো কঠিন হয়ে পড়বে।

জ্বালানি তেলের এই অস্বাভাবিক দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে গতকাল ঢাকার বিভিন্ন স্থানে প্রতিবাদ কর্মসূচি পালন করেছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠন। বর্ধিত দাম প্রত্যাহার না করলে হরতালের মতো কর্মসূচি দেওয়ারও ঘোষণা দিয়েছে বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)।

বিভিন্ন জায়গায় প্রতিবাদ কর্মসূচির মধ্যে গতকাল সন্ধ্যায় শাহবাগ মোড় অবরোধ করেন একদল বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী। পৌনে এক ঘণ্টা রাস্তায় অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করার পর সাতটার দিকে তাঁরা সরে যান। পরে বিক্ষোভ মিছিল করে শাহবাগে জাতীয় জাদুঘরের সামনে অবস্থান নেন ওই শিক্ষার্থীরা। সেখানে ‘বিক্ষুব্ধ ছাত্র-জনতা’ ব্যানারে গণ–অবস্থান শুরু করেন তাঁরা।

পরে গণ–অবস্থানে যুক্ত হন বিভিন্ন ছাত্র, শ্রমিক সংগঠন ও রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মীরা। আজ রোববার বিকেলে শাহবাগে গিয়ে তাঁদের অবস্থান করতে দেখা গেছে। এর নেতৃত্বে থাকা শিক্ষার্থী মোহিদুল ইসলাম দাউদ বলেন, জ্বালানি তেলের বর্ধিত মূল্য প্রত্যাহার না হওয়া পর্যন্ত গণ–অবস্থান কর্মসূচি চলবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.