জায়েদ খান মিথ্যাচারে করছেন, বললেন তারকারা

0
211
রিয়াজ, পপি ও ফেরদৌস

‘নরসিংদীর ড্রিম হলিডে পার্কে একটা অনুষ্ঠান করেছিলাম। ওই টাকায় আর্থিক অস্বচ্ছল শিল্পীদের জন্য ৮ লাখ টাকার ফান্ড করেছিলাম কল্যাণ ফান্ডে রাখার জন্য। সেখানে যেতে বিনা পারিশ্রমিকে কেউ কাজ করতে রাজি হয়নি। সেখানে থেকে ৪ লাখ টাকা নিয়েছে কমিটির সদস্য ফেরদৌস, পপি, সহ-সভাপতি রিয়াজ। তারা প্রত্যেকেই কল্যাণ ফান্ড গঠনের আয়োজন থেকেও ৫০ হাজার করে টাকা নিয়েছেন।’

আসন্ন বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনকে সামনে রেখে রিয়াজ,ফেরদৌস ও পপির বর্তমান মুখখোলা বিষয়ে আক্ষেপ করে কথাগুলো বলেন জায়েদ খান।

জায়েদ খানের এমন অভিযোগ করার পরই প্রতিবাদ করেন রিয়াজ, ফেরদৌস ও পপি। তাদের দাবী জায়েদ খান ভিত্তিহীন কথা বলছেন। মিথ্যাচার করছেন শিল্পীদের নামে। এ ছাড়াও বিগত দুই বছরে সমিতির টাকার হিসেবেও দিতে পারেনি বলে দাবী তাদের।

জায়েদ খানের ওই অভিযোগ অস্বচ্ছল শিল্পীদের চ্যারিটি অনুষ্ঠান থেকে টাকা নেয়া প্রসঙ্গে রিয়াজ বলেন, ‘আমি খুবই অবাক হচ্ছি এরকম মিথ্যাচার শুনে। আমি, ফেরদৌস বা পপি- কেউ কী ৫০ হাজার টাকা পারিশ্রমিকের শিল্পী? এমন স্বস্তা হলে তো দিনে চারটা করে শো করতে পারতাম। সবাইকে নিজেদের মাপের মনে করে ওরা?’

শিল্পী সমিতির বিদায়ী সেক্রেটারি জায়েদ খানের ওই অভিযোগের প্রেক্ষিতে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন নায়ক ফেরদৌসও।তিনি বলেন,  ‘কোনো প্রোগামের জন্য আমার পারিশ্রমিক কী ৫০ হাজার টাকা? ওরা কী বোঝাতে চায়? আমি একটা প্রোগামে গেলে কত টাকা সম্মানি নেই সেটা যারা আমাকে নেন তারা সবাই জানেন।তারা কী প্রমাণ দিতে পারবে আমি এই টাকা সম্মানি নিয়েছি? মুখ দিয়ে অনেক কথা বলা যায়। কিন্তু প্রামাণ ছাড়া কথা বলা ঠিক না। আমি আর এই সমিতির বিষয়গুলো নিয়ে কোনো কথা বলতে চাই না।

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পাওয়া নায়িকা পপিও ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জায়েদ খানের এমন কথায়। জানান আগে শিল্পী সমিতির সব টাকার হিসেবে তাকে দিতে বলেন। খাতা কলমের বাইরেও অনেক টাকা আয় করেছে সে। সেটা তো কাওকেই জানানো হয়নি। পপি বলেন, ‘ জায়েদ যে টাকার কথা বলেছে সেটা কাকে দিয়েছে? কার নামে দিয়েছে? রসিদটা কোথায়? শুধু এই একটা শো’য়ের কথা কেন বলা হচ্ছে? আমি তো সমিতির জন্য অনেক অনুষ্ঠানে পারফর্ম করেছি। রিয়াজ, ফেরদৌস, পূর্ণিমা, সাইমন, অপুসহ আরও অনেকেই এসব অনুষ্ঠানে অংশ নিয়েছেন। কখনো পুলিশের অনুষ্ঠান, কখনো র‍্যাবের, অনেক রকম অনুষ্ঠান। এক টাকাও পারিশ্রমিক নিইনি আমি।’

পপি আরও বলেন, ‘একটা পারফর্ম করলে তো অনেক সহশিল্পী রাখতে হয়। তাদের টাকা দিতে হয়। সেই টাকাটাও দেয়া হতো না। ভাবতাম সমিতির জন্যই কাজ করছি। সমস্যা নেই। জায়েদ বলতো অমুকের অনুষ্ঠান, তমুকের অনুষ্ঠান টাকা নেয়া যাবে না। সমিতির ফান্ডের জন্য কিছু ডোনেশন আসবে।’

 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.