কার্যালয়ে ফিরছেন এয়ার কানাডার আড়াই হাজারেরও বেশি কর্মী

0
41
এয়ার কানাডা। ছবি: সংগৃহীত

জুন ও জুলাইয়ে পর্যায়ক্রমে ২ হাজার ৬০০ কর্মীকে কার্যালয়ে ফিরিয়ে আনবে এয়ার কানাডা। মূলত ভ্রমণ চাহিদা বাড়লে তা যাতে সামাল দেওয়া যায়, সেজন্য প্রস্তুতি নিচ্ছে বিমান সংস্থাটি।

এ প্রসঙ্গে এয়ার কানাডার মুখপাত্র পিটার ফিৎজপ্যাট্রিক বলেন, ‘টিকা নেওয়ার পরিমাণ বৃদ্ধি পাওয়ায় বিমান সংস্থাগুলো শ্রমিকদের পুনরায় ডাকছে। বর্তমানে কোভিড-১৯ শনাক্তের পরিমাণ কমছে এবং সরকারি নিষেধাজ্ঞা সহজ হচ্ছে।’

তিনি আরও জানান, কর্মচারীদের পুনরায় ডাকার এই প্রক্রিয়াটি এয়ারলাইন্সের নেটওয়ার্ক পুনঃনির্মাণ ও ভ্রমণের প্রত্যাশিত চাহিদা মেটানোর প্রচেষ্টার অংশ মাত্র। উল্লেখ্য, বৈশ্বিক করোনাভাইরাস মহামারিতে যে কয়টি খাত গুরুতরভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে, তার মধ্যে এয়ারলাইন্স ব্যবসা অন্যতম।

গত মার্চ মাসে মহামারি সংকট শুরু হওয়ার পর থেকে কয়েক হাজার শ্রমিককে ছাঁটাই করে এয়ার কানাডা। পরে এপ্রিলে এয়ারলাইন্স অটোয়ার সঙ্গে ৫.৯ বিলিয়ন ডলারের সহায়তা প্যাকেজের একটি চুক্তিতে আসে বিমান সংস্থাটি।

কানাডার বৃহত্তম এ এয়ারলাইন্স জানিয়েছে, ফ্লাইট বা অবকাশ প্যাকেজের রিফান্ডের অনুরোধ সময়সীমা ১২ জুলাই পর্যন্ত ৩০ দিন বাড়ানো হয়েছে। রিফান্ড নীতিটি কার্যকর হয়েছে এপ্রিলের ১৩ তারিখ থেকে, বর্তমানে ৯২% অনুরোধ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে