কাঁচা মরিচের কেজি ২৫০ টাকা!

0
388
কাঁচা বাজারে বেড়েছে অস্বস্তি

বন্যার আগে কক্সবাজারের চকরিয়ায় প্রতি কেজি কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছিল ৫০-৬০ টাকায়। নয় দিনের বন্যার পর সেই মরিচের দাম গিয়ে ঠেকেছে কেজি প্রতি ২৫০ টাকায়। প্রায় পাঁচ গুণ বেশি দামে মরিচ কিনতে গিয়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে সাধারণ ক্রেতাদের।

গত ৬ থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত হওয়া টানা বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে ডুবে যায় চকরিয়া ও পেকুয়া উপজেলার বিস্তীর্ণ এলাকা। পানিবন্দী হয়ে পড়ে লাখো মানুষ। বন্যার সময় দুই উপজেলার বেশির ভাগ সবজি খেত পানিতে ডুবে যাওয়ায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন প্রায় দেড় হাজার কৃষক।

 

কাঁচা মরিচের এত দাম চাওয়ার কারণ জানতে চাইলে বিক্রেতা জাহাঙ্গীর আলম বলেন, বন্যার পানিতে সব খেত তলিয়ে যাওয়ায় ফসলের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। বন্যা পরিস্থিতি উন্নত হওয়ার পর গত ১৫ জুলাই থেকে ২২০ টাকা কেজিতে কাঁচা মরিচ বিক্রি হচ্ছিল। দাম বাড়তে বাড়তে এখন ২৫০ টাকায় এসে ঠেকেছে।

আরেক বিক্রেতা আবুল কালাম বলেন, আগে চকরিয়ার সবজি কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জের আড়তে যেত। অথচ এখন আড়তে সবজি যাচ্ছে লামা ও আলীকদম থেকে। বন্যার কারণে চকরিয়ার বেশির ভাগ খেতের সবজি নষ্ট হয়ে গেছে। এ কারণে সবজির দাম বেড়েছে।

জানতে চাইলে চকরিয়া উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা আতিক উল্লাহ বলেন, ‘আমনের বীজতলা থেকে শুরু করে সব সবজি খেত সপ্তাহ খানিক পানির নিচে ছিল। তবে সবজির বাম্পার ফলন হওয়ায় বাজারে এখনো অত প্রভাব পড়েনি।’

পেকুয়া বাজার ব্যবসায়ী সমিতির সম্পাদক মিনহাজ উদ্দিন বলেন, সবজির দাম আকাশচুম্বী হয়ে গেছে। বাজার তদারকি করেও দাম বৃদ্ধি ঠেকানো যাচ্ছে না। বন্যায় ফসল নষ্ট হয়ে যাওয়ায় বিক্রেতাদেরও বাধ্য হয়ে বেশি দামে ফসল বিক্রি করতে হচ্ছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে