কল কাটা, ভুতুড়ে বিলের সমাধান যে অ্যাপে

0
253
ফোনের বিল

সরকারি মালিকানাধীন ল্যান্ডফোন সেবা নিয়ে অভিযোগ অনেক পুরোনো। ফোনের সংযোগ বিচ্ছিন্ন, কথা ঠিকমতো শুনতে না পারা, কল কেটে যাওয়া, ভুতুড়ে বিলসহ নানা সমস্যায় গ্রাহকদের ভোগান্তির শেষ নেই। এসব সমস্যা লাঘবে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশনস কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল) চালু করেছে টেলিসেবা নামে মুঠোফোনের অ্যাপ। এই অ্যাপের মাধ্যমে বিভিন্ন অভিযোগ আগের তুলনায় কম সময়ে নিষ্পত্তি হচ্ছে। এ ছাড়া মতামত জানানো এবং টেলিফোন বিল পরিশোধও করা যাচ্ছে ঘরে বসে।

মগবাজারের বাসিন্দা বেসরকারি চাকরিজীবী মাহবুবুল হকের বাসার টেলিফোন সংযোগটি প্রায় এক মাস ধরে অচল ছিল। স্থানীয় লাইনম্যানকে অভিযোগ জানিয়েও তিনি কোনো সমাধান পাননি। পরে এক বন্ধুর মাধ্যমে খোঁজ পান টেলিসেবা অ্যাপের। এটি ব্যবহার করে ৮ জানুয়ারি বেলা পৌনে দুইটা নাগাদ বিটিসিএল বরাবর অভিযোগ দাখিল করেন। সাড়ে চার ঘণ্টার মধ্যে সচল হয় তাঁর টেলিফোন সংযোগটি।

মাহবুবুল বলেন, ‘বাসায় মায়ের ব্যবহারের জন্যই টেলিফোন রাখা। প্রথমে লাইনম্যানকে জানিয়েও কাজ হয়নি। তবে টেলিসেবা অ্যাপে অল্প সময়ে লাইনটি ঠিক হয়ে যায়। এভাবে অভিযোগ দ্রুত আমলে নিলে বিটিসিএলের ল্যান্ডফোন সেবায় মানুষের আগ্রহ বাড়বে।’

বিটিসিএল কর্তৃপক্ষ গত বছরের ২২ অক্টোবর থেকে ‘টেলিসেবা’ অ্যাপ চালু করেছে। কর্তৃপক্ষ বলেছে, চালু হওয়ার পর থেকে গত তিন মাসে টেলিসেবা অ্যাপের মাধ্যমে তাদের কাছে অভিযোগ এসেছে ১ হাজার ৮৭৭টি। এগুলোর মধ্যে অভিযোগ নিষ্পন্ন হয়েছে ১ হাজার ৮৫২টির।

অ্যাপটি বানিয়েছেন বিটিসিএলে কর্মরত সফটওয়্যার প্রকৌশলীরা। অ্যাপটি আরও আধুনিকীকরণের কাজ চলছে বলে জানান বিটিসিএলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক রফিকুল মতিন। তিনি বলেন, টেলিসেবার মাধ্যমে গ্রাহক পর্যায়ের সেবা সহজ করা হয়েছে। অভিযোগ পেলে সেটি কোনো অবস্থাতেই ফেলে রাখা হয় না। যেকোনো অ্যান্ড্রয়েড মুঠোফোনের মাধ্যমে গুগল প্লে স্টোর থেকে এই টেলিসেবা অ্যাপ ডাউনলোড করে ব্যবহার করা যাবে। ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যে আইফোনের জন্যও টেলিসেবা অ্যাপ চালু হবে।

মুঠোফোনের অ্যাপ ছাড়াও টেলিফোন সংযোগ নিয়ে অভিযোগ জানানো যাচ্ছে কল সেন্টারের মাধ্যমে। ১৬৪০২ এই নম্বরে কল দিয়ে অভিযোগ জানাতে হবে। অ্যাপ বা কল সেন্টারের মাধ্যমে নথিভুক্ত হওয়া অভিযোগ আসার পরেই তা তদারকির জন্য দায়িত্বপ্রাপ্ত হন সংশ্লিষ্ট আঞ্চলিক মহাব্যবস্থাপক। তিনি সেই অভিযোগ নিষ্পন্নের দায়িত্ব দেন সহকারী ব্যবস্থাপককে। গ্রাহকের সঙ্গে যোগাযোগ করে অভিযোগটি সমাধান করা হয় কয়েক ঘণ্টা থেকে সর্বোচ্চ ৭২ ঘণ্টার মধ্যে। অভিযোগ নিষ্পন্ন হওয়ার পরপরই গ্রাহকের অ্যাপে নোটিফিকেশন ও মুঠোফোনে খুদে বার্তা পাঠিয়ে জানানো হয়। সেবা পাওয়া নিয়ে গ্রাহক মতামত জানাতে পারেন অ্যাপের মাধ্যমে।

মুজিব শতবর্ষে বিনা মূল্যে সংযোগ

২০০৮ সালের ৩০ জুন বাংলাদেশ তার ও টেলিফোন বোর্ডকে (বিটিটিবি) ভেঙে বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশনস কোম্পানি লিমিটেড (বিটিসিএল) এবং বাংলাদেশ সাবমেরিন কেব্‌ল কোম্পানি লিমিটেড (বিএসসিসিএল) গঠিত হয়। ২০০৯ সালে বিটিসিএলের ল্যান্ডফোন গ্রাহকসংখ্যা ছিল সারা দেশে ৮ লাখ ৬৬ হাজার ৭৮৪। বর্তমানে তা কমে দাঁড়িয়েছে ৫ লাখ ১৯ হাজার ৬৯০ জনে। গত ১১ বছরে বিটিসিএল গ্রাহক হারিয়েছে ৩ লাখ ৪৭ হাজার ৯৪ জন। বিটিসিএল থেকে ইন্টারনেট সেবার গ্রাহকসংখ্যা ১৭ হাজার ৫০৫। ইন্টারনেট সেবার গ্রাহক ঢাকার বাইরে বেশি।

মুঠোফোনের ব্যবহার বাড়ার পর থেকে প্রতিবছরই কমেছে টেলিফোন গ্রাহকের সংখ্যা। গ্রাহকদের সন্তুষ্টি অর্জনে বিটিসিএল কর্তৃপক্ষ মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে বিনা মূল্যে ল্যান্ডফোন সংযোগ দিচ্ছে। বিটিসিএল সূত্রে জানা গেছে, নতুন সংযোগের পাশাপাশি টেলিফোনের পুনঃ সংযোগের ক্ষেত্রেও গ্রাহকদের জন্য এই অফার দেওয়া হচ্ছে। ২০১৯ সালের আগস্ট মাস থেকে বিটিসিএলের ল্যান্ডফোনের মাসিক লাইন ভাড়া তুলে দেওয়া হয়। এর পরিবর্তে প্রতি মাসে ১৫০ টাকায় বিটিসিএলের ল্যান্ডফোন থেকে ল্যান্ডফোনে কথা বলার সুবিধা চালু করা হয়। এ ছাড়া বিটিসিএল থেকে অন্য যেকোনো মোবাইল ফোন অপারেটরে প্রতি মিনিটে ৫২ পয়সায় কথা বলার সুবিধা চালু হয়।

তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ সুমন আহমেদ বলেন, যেকোনো সেবা পর্যবেক্ষণ করার জন্য মুঠোফোনের অ্যাপ একটি শক্তিশালী হাতিয়ার। টেলিসেবা অ্যাপের মাধ্যমে বিটিসিএলের অভিযোগ সমাধানের উদ্যোগটি নিঃসন্দেহে প্রভাবশালী। কারণ, গ্রাহক সেবা পাচ্ছে কি না বা কতটুকু পাচ্ছে, তা পর্যবেক্ষণ করার সহজলভ্য সুযোগ আগে ছিল না, যেটি এখন টেলিসেবা অ্যাপের মাধ্যমে করা যাচ্ছে। তিনি আরও বলেন, সারা বিশ্বেই ল্যান্ডফোনের সংখ্যা দিন দিন কমছে। তবু এটি একেবারেই হারিয়ে যাচ্ছে না। বিটিসিএল যদি টেলিসেবাটি ধরে রাখতে পারে, তাহলে গ্রাহকদের আগ্রহ অবশ্যই বাড়বে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে