কলম্বো টেস্টে কিউইদের কর্তৃত্ব

0
365
ছবি: ইএসপিএন

টেস্ট সিরিজ বাঁচানোর স্বপ্ন দেখা নিউজিল্যান্ড কলম্বোর পি সারা স্টেডিয়ামে প্রথম দিনই ধাক্কা খায়। দ্বিতীয় টেস্টের প্রথম দিনের প্রায় পুরোটা বৃষ্টির পেটে চলে যায়। এরপর ব্যাট করতে নামা স্বাগতিক শ্রীলংকাকে একটা ধাক্কা দেয় কিউই পেসাররা। ৯৩ রানে ৪ উইকেট হারায় জয় দিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু করা শ্রীলংকা। ধনাঞ্জয়া ডি সিলভার সেঞ্চুরি প্রথম ইনিংসে ২৪৪ রান তোলে লংকানরা। জবাবে শুরুতে চাপে পড়া নিউজিল্যান্ড প্রথম ইনিংসে ৫ উইকেট হারিয়ে তুলেছে ৩৮২ রান। চতুর্থ দিন শেষে লিড নিয়েছে ১৩৮ রানের।

প্রথমে দলের ৮৪ রানে ৩ উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। এরপর ১২৬ রানে হারায় চতুর্থ উইকেট। সেখান থেকে উইকেটে গেড়ে বসেন ওপেনার টম ল্যাথাম এবং উইকেটরক্ষক বিজে ওয়াটলিং। দু’জনে যোগ করেন ১৪৩ রান। ল্যাথাম আউট হন ১৫৪ রান করে। এরপর ওয়াটলিং এবং কলিন ডি গ্রান্ডহোম ১১৩ রানের জুটি গড়েন। শেষ করেন চতুর্থ দিন। ওয়াটলিং ২০৮ বলে খেলে ৮১ রান করেছেন। গ্রান্ডহোম ৭৫ বলে ৮৩ রান তুলে দিন শেষ করেছেন।

শুরুতে কিউই শিবিরে ধাক্কা দিয়ে বৃষ্টি বৃঘ্নিত ম্যাচে জয়ের স্বপ্ন দেখা শুরু করে শ্রীলংকাও। কিন্তু কিউইরা দ্বিতীয় টেস্ট শ্রীলংকার ধরা ছোঁয়ার বাইরে নিয়ে গেছে। ড্র’ই এই টেস্টের নিয়তি। নিউজিল্যান্ডের হারের সম্ভাবনা নেই বললেই চলে। তবে কিউইরা পঞ্চম দিনে বড় লিড দিয়ে বিস্ময় জাগানিয় কিছু করতে পারলে জয়ও পেতে পারে। তবে শেষ পর্যন্ত ড্র হলে ক্ষতি নেই শ্রীলংকার। সিরিজ জয় দিয়েই শেষ করবে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে নিজেদের প্রথম সিরিজ।

এর আগে শ্রীলংকার হয়ে প্রথম ইনিংসে ওপেনার দিমুথ করুনারত্নে ৬৫ রান করেন। ধনাঞ্জয়া ডি সিলভা খেলেন ১০৯ রানের ইনিংস। প্রথম ইনিংসে টিম সাউদি ৪টি এবং ট্রেন্ট বোল্ট ৩ উইকেট নেন। কিউইদের পাঁচ উইকেটের তিনটিই নিয়েছেন দিলরুয়ান পেরেরা। এছাড়া লাহিরু কুমারা এবং লাসিথ এমবুলডেনিয়া একটি করে উইকেট নেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.