এস এম শফি ছিলেন জনকল্যাণের অগ্রদূতঃযতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা

0
483
এস এম শফি’র স্মরণে শোক সভা ও মিলাদ মাহফিলে বক্তব্য রাখছেন যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা।

খাগড়াছড়ি জেলা আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক মরহুম এস এম শফির স্মরণে শোক সভা ও মিলাত মাহফিল আয়োজন করা হয়।

এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার প্রাক্তন সাংসদ ও ভারত প্রত্যাগতভারত প্রত্যাগত শরনার্থী বিষয়ক টাস্কফোর্সের চেয়ারম্যান যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা  এবং সভাপতিত্ব করেন খাগড়াছড়ির অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. হাবিব উল্লাহ মারুফ ।

আজ বুধবার দুপুরে জেলা শহরের শব্দমিয়াপাড়াস্থ হ্যোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ক্যাম্পাসে শোক সভা অনুষ্ঠিত হয়। শুরুতে কলেজ উপাধ্যক্ষ ডা. জ্যোতি বিকাশ চাকমা শোক প্রবন্ধ পাঠ করে শোনান। পরে উপস্থিত সকলে মরহুমের আত্মার শান্তি কামনা করে এক মিনিট নিরবতা পালন করেন।

এস এম শফি’ খাগড়াছড়ি পার্বত্য হ্যোমিওপ্যাথিক মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা ছিলেন। তাঁর স্মরণে শোক সভা ও মিলাদ মাহফিল করেছে কলেজ পরিচালনা পরিষদ, শিক্ষক ও চিকিৎসকবৃন্দ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে যতীন্দ্র লাল ত্রিপুরা বলেন, পার্বত্য অঞ্চলের জনকল্যানের অগ্রদূত এস এম শফি। গুনী মানুষরা কখনো মরে না। তারা ভালো কাজের মধ্য দিয়েই সকলের হৃদয়ে বেঁচে থাকে যুগ যুগ ধরে। এস এম শফি তাদেরই একজন। তাঁর জীবনের বেশির ভাগ সময় কেটেছে মানব সেবা ও জনকল্যাণমূখী কাজ করে।

তিনি আরো বলেন, এ হোমিও হাসপাতাল তারই প্রতিষ্ঠার ফসল। এ প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে এসএম শফিকে আজীবন স্মরণ করবে এ অঞ্চলের মানুষ।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, খাগড়াছড়ি পৌর মেয়র রফিকুল আলম, হ্যোমিওপ্যাথিক বোর্ডের ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ডা. এ কে এম ফজলুল হক ছিদ্দিক, হ্যোমিপ্যাথিক কলেজের বাস্তবায়ন কমিটির আহ্বায়ক ডা. মনোরঞ্জন দেব, পৌর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. শাহ আলম,কলেজ ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ডা. সমীরণ চৌধুরী প্রমূখ।অনুুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন কলেজের অধ্যক্ষ ডা.মোঃ কাজী তোফায়েল আহম্মদ ।

গত ২৪ সেপ্টেম্বর অসুস্থ হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় চট্টগ্রামের একটি বেসরকারী হাসপাতালে এসএম শফি মৃত্যু বরণ করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে