এবার টেস্টকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে বিসিবি

0
184
ভারত সফর দিয়ে টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ অভিযান শুরু করবে বাংলাদেশ।

বিশ্বকাপের পর কোচিং স্টাফে শূন্য হয়ে পড়া জায়গাগুলো বিসিবি পূরণ করলেও গত মাসে চট্টগ্রাম টেস্ট ও ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজে সবাইকে এক সঙ্গে পাওয়া যায়নি। ভারত সফর সামনে থেকে শুরু করে ২৫ অক্টোবর থেকে শুরু অনুশীলন ক্যাম্পে পূর্ণাঙ্গ কোচিং স্টাফ নিশ্চিত করেছেন বিসিবির ক্রিকেট পরিচালনা বিভাগের প্রধান আকরাম খান।

সাধারণত সংক্ষিপ্ত সংস্করণের টুর্নামেন্ট বা সিরিজ থাকলে তা সামনে রেখে প্রস্তুতি নিয়ে থাকে জাতীয় দল। কিন্তু এবার ভারত সফর বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে বিসিবির কাছে। ভারতে প্রথম পূর্ণাঙ্গ সফর বলেই নয়, বাংলাদেশের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু এই সফর দিয়ে। টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ বলে এবার টেস্ট সিরিজটা আলাদাভাবে গুরুত্ব দিচ্ছে বিসিবি। বাংলাদেশ দলের খেলোয়াড়দের জাতীয় লিগের দুই রাউন্ড খেলা বাধ্যতামূলক করা হয়েছে এ কারণেই। গত দুই মাসে বিসিবির দুটি দল খেলে এসেছে ভারতে, যে দলে আছেন টেস্ট দলের কয়েকজন নিয়মিত সদস্য।

ভারতের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের গুরুত্ব বোঝাতে কাল আকরাম বলেছেন, ‘আপনারা জানেন ভারত সেরা দল। ঘরের মাঠে তারা আরও শক্তিশালী। এটা আমাদের কঠিন সফর হবে। এই সফর দিয়ে আমাদের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ শুরু হবে। এটা মাথায় রেখেই কিন্তু আমরা দুবার দুটি দল পাঠিয়েছি ভারতে। টেস্টের কথা ভাবনায় রেখে আমরা পরিকল্পনা করেছি যে জাতীয় লিগে খেলোয়াড়েরা দুটি রাউন্ড খেলবে।’

নভেম্বরে ভারতের মাটিতে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলবে বাংলাদেশ। ১৪ নভেম্বর থেকে শুরু হবে প্রথম টেস্ট। বাংলাদেশের টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ অভিযান শুরু এ সফর দিয়ে। আর তাই ভারত সফরকে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)

ভারত সফরের প্রস্তুতি ভালোভাবে নিতে কোচিং স্টাফে সবার উপস্থিতি নিশ্চিত করছে বিসিবি। প্রথমবারের মতো দলের সঙ্গে যোগ দেবেন স্পিন বোলিং পরামর্শক ড্যানিয়েল ভেট্টোরি। কোচিং স্টাফের বাকি সদস্যরাও ২৫ অক্টোবরের আগে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। বিশ্বকাপ ও শ্রীলঙ্কা সিরিজের পর আফগানিস্তানের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ দিয়ে অভিষেক হয় প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো ও পেস বোলিং কোচ শার্ল ল্যাঙ্গেভেল্টের। ফিজিও জুলিয়ান ক্যালেফাতোও যোগ দেন চট্টগ্রাম টেস্টের আগে।

এত দিন শুধু ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সংস্করণের ব্যাটিং পরামর্শকের দায়িত্ব নিয়েছিলেন ম্যাকেঞ্জি। সামনে বাংলাদেশের ওয়ানডে ম্যাচ না থাকায় সাবেক প্রোটিয়া ওপেনারকে টেস্টেও ব্যবহার করতে চায় বিসিবি। ভারতে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজের পর ম্যাকেঞ্জির প্রথম টেস্টে দলের সঙ্গে থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন আকরাম, ‘ম্যাকেঞ্জি টেস্ট সিরিজের আগেই আসবে। প্রথম টেস্টেই থাকবে। একই কোচ যদি লাল এবং সাদা বল দুই বলের জন্য থাকে, সেটা দলের জন্য ভালো। আমরা সে চেষ্টাই চালিয়ে যাচ্ছি। সে আপাতত প্রথম টেস্টে থাকবে, তবে দ্বিতীয় টেস্টে বলা যাচ্ছে না। ওর সঙ্গে চুক্তি শুধু টি-টোয়েন্টি এবং ওয়ানডেতে, টেস্টে ওর সঙ্গে চুক্তি নেই আমাদের। কিন্তু যদি ম্যাকেঞ্জি তিন সংস্করণেই থাকে, তাহলে ভালো হয়। সে দক্ষিণ আফ্রিকায় তিন সংস্করণের কোচ ছিল। তবে যেহেতু তার পরিবারকে সময় দেওয়া নিয়ে একটু সমস্যা হচ্ছে, তাই এটি নিয়ে আমরা আলাপ করছি।’

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে