ইলিশ ধরার অপরাধে ১৪ জেলের কারাদণ্ড, ৫ জেলের অর্থদণ্ড

0
349
ইলিশ

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে নদীতে ইলিশ ধরার অপরাধে লক্ষ্মীপুরের কমলনগর উপজেলার ১৪ জেলেকে কারাদণ্ড ও রামগতি উপজেলার ৫ জেলেকে অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। বুধবার ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাঁদের এই সাজা দেওয়া হয়।

বুধবার ভ্রাম্যমাণ আদালত ও মৎস্য বিভাগ যৌথ অভিযান চালিয়ে কমলনগরের মেঘনা নদী থেকে ১৪ জেলেকে আটক করে। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতে বসিয়ে কমলনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ইমতিয়াজ হোসেন তাঁদের এক মাস করে কারাদণ্ড দেন। অভিযানে জব্দ করা ২০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। এ ছাড়া জব্দ করা হয়েছে দুটি নৌকা।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন ভোলা সদরের চরগাজী এলাকার মো. ফারুক, মো. আনোয়ার হোসেন, মো. আজগর, মো. আলাউদ্দিন, কমলনগরের চরজগবন্ধু এলাকার মো. হাসান, মো. জাহাঙ্গীর, মো. শাহিন, মো. হেলাল, মো. সুজন, মো. আরিফ, আবদুল গণি, চরফলকন এলাকার মো. রিপন, মো. মুছা কালিম উল্লাহ ও চরকাদিরা এলাকার মো. আমির হোসেন।

এ দিকে রামগতির মেঘনা নদী এলাকায় ইলিশ শিকারের দায়ে পাঁচ জেলেকে আটক করা হয়। পরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুচিত্র রঞ্জন দাস ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে তাঁদের প্রত্যেককে এক হাজার টাকা করে জরিমানা করেন। প্রাথমিকভাবে তাঁদের নাম জানা যায়নি।

লক্ষ্মীপুর জেলা মৎস্য কর্মকর্তা এস এম মহিব উল্যাহ বলেন, মেঘনা নদীতে ২২ দিন মাছ ধরা নিষিদ্ধ করা হয়েছে। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে মাছ শিকারের দায়ে ১৯ জনকে আটক করা হয়। এর মধ্যে ১৪ জনের এক মাস করে কারাদণ্ড ও ৫ জেলেকে এক হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে