ইরানি শাসকদের নরম সুর

0
72
মাহসা আমিনির মৃত্যুকে ঘিরে বিক্ষোভে উত্তাল ইরান। ছবি: বিবিসি অনলাইন

মাহসা আমিনির মৃত্যুকে ঘিরে বিক্ষোভে উত্তাল ইরান। এ পরিস্থিতিতে কট্টরপন্থি হিসেবে পরিচিত দেশটির শাসকদের গলায় নরম সুর শোনা যাচ্ছে। বিচার বিভাগের প্রধান গোলাম- হোসেইন মোহসেনি এজেইর বক্তব্যে নরম সুরের বিষয়টি একদম পরিষ্কার। ইরানে ইসলামী বিপ্লবের ৪৩ বছরের মধ্যে এই প্রথম নরম সুর বের হলো দেশটির বিচার বিভাগের শীর্ষস্থানীয় কর্তাদের কণ্ঠ থেকে।

বিচার বিভাগের প্রধান কট্টরপন্থি হিসেবে পরিচিত এজেই বলেছেন, কোনো ভুল করে থাকলে তাঁরা সংশোধনে যেতে প্রস্তুত। নারীর পোশাকের স্বাধীনতার দাবিতে চলমান আন্দোলন সম্পর্কে মন্তব্য করতে গিয়ে শব্দ চয়নের ক্ষেত্রে সোমবার খুবই সতর্ক ছিলেন এজেই। খবর বিবিসি ও এএফপির।

তিনি বলেন, আমি প্রস্তুত। চলুন কথা বলি, আমরা যদি ভুল করে থাকি, সেগুলো সংশোধন করতে পারি। তবে আলোচনার প্রস্তাব দিতে তিনি দেরি করেছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। সাধারণ বিক্ষুব্ধ ইরানিরা তাঁকে বিশ্বাস করছেন না।

২০১৭ সাল থেকেই ইরানের বিচার বিভাগ হাজার হাজার বিক্ষোভকারীকে জেলে পাঠিয়েছে এবং অনেকেই ন্যায়বিচার পাননি বলে অভিযোগ রয়েছে। অন্যদিকে, সংস্কারপন্থি ব্যক্তিত্ব জালাল জালালিজাদেহ রক্ষণশীল সংবাদমাধ্যম নামহ নিউজকে এক সাক্ষাৎকারে সরকারকে দ্রুত জনগণের সঙ্গে সংলাপ শুরু করার আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি সরকারকে সতর্ক করে বলেছেন, কর্তৃপক্ষ জনগণের প্রতি সহানুভূতি দেখাতে ব্যর্থ হলে সমাজ আরও দ্বিমুখী হয়ে উঠবে এবং এটি কারও স্বার্থ রক্ষা করবে না। ইরানের নতুন প্রজন্মের চাহিদা আগের প্রজন্মের চাহিদার থেকে আলাদা বলেন তিনি।

এদিকে ইরানে নিকা শাকারামি নামে ১৬ বছর বয়সী এক কিশোরীর বিক্ষোভ করার ভিডিও অনলাইনে ছড়িয়ে পড়েছে। নিকা শাকারামির মা বিবিসি পার্সিয়ানকে বলেন, ভিডিওগুলো তাঁর মেয়ে মারা যাওয়ার কয়েক ঘণ্টা আগে ধারণ করা।

নিকার পরিবার বলছে, নিখোঁজ হওয়ার ১০ দিন পর একটি মর্গে নিকার লাশ শনাক্ত করেছেন তাঁরা। নিকাকে শনাক্ত করতে মাত্র কয়েক সেকেন্ডের জন্য তার মুখ দেখতে দেওয়া হয়েছিল।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.