ইউক্রেনকে অস্ত্র দেবে না ইসরায়েল, অব্যাহত থাকবে মানবিক সহায়তা

0
78
ইসরায়েলের প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেনি গ্যান্টজ ছবি: রয়টার্স

ইউক্রেনে রুশ আগ্রাসনের শুরু থেকেই ইসরায়েল মস্কোর সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষার জন্য একটি সূক্ষ্ম কূটনৈতিক পন্থা অবলম্বন করে আসছে। ইসরায়েলের প্রতিবেশী দেশ সিরিয়ায় বিমান হামলার অভিযান চালিয়ে যেতে রাশিয়ার সহযোগিতা প্রয়োজন। সিরিয়ায় বর্তমানে রুশ সেনাদের উপস্থিতি রয়েছে এবং সেখানে ইসরায়েল প্রায়ই ইরান–সংশ্লিষ্ট লক্ষ্যবস্তুতে হামলা চালায়।

ইসরায়েলি কর্মকর্তারা তাঁদের দেশে বিপুলসংখ্যক ইহুদি বসবাসের কারণে রাশিয়ার সঙ্গে সম্পর্ক রক্ষা করার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দিয়েছেন। সোভিয়েত ইহুদিরা যখন ইসরায়েল থেকে বহুলাংশে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল, স্নায়ুযুদ্ধের ওই সময়কার পরিস্থিতি এড়ানোরা চেষ্টা করছে তারা।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি একজন ইহুদি। রাশিয়ার পদক্ষেপের বিষয়ে দৃঢ়তার সঙ্গে বিরোধিতা করতে ব্যর্থ হওয়ার জন্য বেশ কয়েকবার ইসরায়েলের কড়া সমালোচনা করেছেন তিনি। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ইসরায়েল নিরপেক্ষ অবস্থান নিয়েছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা।

গ্যান্টজ গতকাল বলেন, ইসরায়েল ইউক্রেনকে জীবন রক্ষাকারী প্রতিরক্ষামূলক সরঞ্জামসহ মানবিক সহায়তা প্রদান অব্যাহত রাখবে এবং শিগগিরই ‘একটি অতিরিক্ত প্যাকেজ’ অনুমোদন করার সম্ভাবনা রয়েছে। কিন্তু কোনোরকমের অস্ত্র সহায়তা করা হবে না।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.