আ.লীগের মুখে উন্নয়ন, বুকে দুর্নীতি: রিজভী

0
211
রুহুল কবির রিজভী। ফাইল ছবি

বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী বলেছেন, আওয়ামী লীগের মুখে উন্নয়ন আর বুকে দুর্নীতি। উন্নয়নের নামে দুর্নীতি এখন আওয়ামী লীগকে জনমনে ঘৃণার পাত্রে পরিণত করেছে।

আজ রোববার এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন রিজভী। রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এ সংবাদ সম্মেলন হয়।

রিজভী আজ বলেন, কথিত দুর্নীতিবিরোধী অভিযান পরিচালনা করতে গিয়ে যখন জনগণের সামনে আওয়ামী লীগের দুর্নীতির কালিমালিপ্ত চেহারা প্রকাশ হয়ে পড়েছে, তখন সেই চেহারা আড়াল করার জন্য তারা নানা রকম কুতর্কের জন্ম দিচ্ছে। নিশিরাতের সরকারের কাছে জনগণ কুতর্ক শুনতে চায় না, দুর্নীতিবাজেরা কে কোন দলের, সেটি শুনতে চায় না। জনগণ চায়, বিএনপিও চায়, দুর্নীতিবাজ সে যে-ই হোক, তার বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হোক।

রিজভী বলেন, রূপপুরের দুর্নীতি কিংবা ক্যাসিনো কেলেঙ্কারি, যেখানেই দু-একটি চুনোপুঁটি ধরা হচ্ছে, সেখানে দুর্নীতির বিচারের পরিবর্তে এটিকে রাজনৈতিক রং দিয়ে আওয়ামী লীগ একটা বিকৃত আনন্দ লাভ করে।

সরকারের সমালোচনা করে রিজভী আরও বলেন, সুশাসনের আমেজ দিতেই নাকি ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান। হাস্যকর এই চমক আর আমেজ চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল চুনোপুঁটিদের অফিস-বাড়ির সিন্দুকে শত শত কোটি টাকার স্টক। সহজেই অনুধাবন করা যাচ্ছে, রাঘববোয়ালদের কাছে রয়েছে রাষ্ট্রের লুট হওয়া লাখো কোটি টাকা।

রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ-যুবলীগের মাঝারি নেতাদের ঘরে ঘরে অবৈধ টাকার সিন্দুক। ভল্ট, টাঁকশাল, কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা ও সোনাদানার খনি আবিষ্কার হওয়ার পর বড় নেতারা ভীতসন্ত্রস্ত হয়ে পড়েছেন। চারদিক থেকে যখন রাঘববোয়ালদের বিরুদ্ধে অভিযানের দাবি জোরালো হচ্ছে, তখনই থামিয়ে দেওয়া হয়েছে অভিযান। রাঘববোয়াল ও দুর্নীতির রথী-মহারথীদের সুতোর টানে এগোতে পারছে না অভিযান।

সাবেক ছাত্রনেতা রিজভী বলেন, আওয়ামী লীগ নিজেদের রাজনৈতিক চরিত্র হারিয়ে জনবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে। তাদের এখন নানা রকম মিথ্যাচার ও ছলচাতুরীর আশ্রয় নিতে হচ্ছে।

রিজভী আরও বলেন, দেশের প্রতিটি মানুষ বিশ্বাস করে, ক্যাসিনো কেলেঙ্কারির শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত কোনো কিছুই আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর অজানা ছিল না। কিন্তু আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী নিজেদের সরকারের দলীয় বাহিনী হিসেবে পরিণত করায় এত দিন তারা ক্যাসিনোতে অভিযান চালাতে সাহস করেনি। দেশের প্রতিটি সচেতন নাগরিক মাত্রই বিশ্বাস করেন, রাষ্ট্র ও সমাজে দুর্নীতি, অনাচার ও অনিয়মের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা পুলিশের স্বাভাবিক কাজের অংশ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.