আসছেন দক্ষিণ আফ্রিকান ফিজিও জুলিয়ান

0
177
জুলিয়ান ক্যালেফাতো।

জাতীয় দলের কোচিং স্টাফের প্রায় সব পদে নিয়োগ হয়ে গেছে আগেই। ফাঁকা ছিল ফিজিও পদটি। এই পদের জন্যও একজনকে ঠিক করে ফেলেছে বিসিবি। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের নতুন ফিজিও হলেন দক্ষিণ আফ্রিকার জুলিয়ান ক্যালেফাতো। এ নিয়ে জাতীয় দলের কোচিং স্টাফের পাঁচজনই দক্ষিণ আফ্রিকান। ডমিঙ্গো, ল্যাঙ্গেভেল্ট ও কুক জাতীয় দলের ক্যাম্পে যোগ দিয়েছেন। ব্যাটিং কোচ ম্যাকেঞ্জি আগে থেকেই আছেন। ফিজিওথেরাপিস্ট জুলিয়ানের ৩১ আগস্ট ঢাকায় আসার কথা। প্রাথমিকভাবে তার সঙ্গেও দুই বছরের চুক্তি হয়েছে বিসিবির।

টাইগারদের সর্বশেষ ফিজিও ছিলেন শ্রীলংকান বংশোদ্ভূত অস্ট্রেলিয়ান থিহান চন্দ্রমোহন। বিশ্বকাপের পর তার সঙ্গে চুক্তি নবায়ন করেনি বিসিবি। টাইগারদের সাবেক প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে নিয়ে এসেছিলেন থিহানকে। বিশ্বকাপের পর থেকেই জাতীয় দলের ফিজিওর পদ শূন্য। এই ক’দিন আপৎকালীন দায়িত্ব পালন করছেন বিসিবির ফিজিও বায়েজিদুল ইসলাম। জুলিয়ানের আগে ভারতীয় বংশোদ্ভূত দক্ষিণ আফ্রিকার বিভব সিং টাইগারদের ফিজিও ছিলেন।

জুলিয়ানের অবশ্য ক্রীড়াঙ্গনে তেমন একটা পরিচিতি নেই। আন্তর্জাতিক দলের সঙ্গে কাজের অভিজ্ঞতাও নেই তার। বিসিবির তাই তাকে চেনার কথা নয়। সেক্ষেত্রে ডমিঙ্গো-কুকদের কেউ বিসিবিকে জুলিয়ানের ব্যাপারে সুপারিশ করেছেন। পেশাগত দিক থেকে অবশ্য খুবই অভিজ্ঞ জুলিয়ান। অ্যালামনাস অব দ্য ইউনিভার্সিটি অব ইস্ট অ্যাঙ্গলিয়া, কেপটাউন বিশ্ববিদ্যালয় ও স্টেলেনবাচ বিশ্ববিদ্যালয়ে লেখাপড়া তার। ফিজিওথেরাপিতে মাস্টার্স, মেডিকেল অনার্স ডিগ্রি, ফিজিক্যাল এডুকেশন ও জিওগ্রাফিতে ব্যাচেলর ডিগ্রি এবং কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতাল থেকে ফিজিওথেরাপি প্লেসমেন্ট সম্পন্ন করেন জুলিয়ান।

এরপর ২০০৬ সাল থেকে পেশাদার ফিজিও এবং ট্রেনার হিসেবে কাজ করেন জুলিয়ান। দক্ষিণ আফ্রিকার ডিপার্টমেন্ট অব হেলথের ফিজিওথেরাপিস্ট ছিলেন তিনি। ইংল্যান্ডের গ্লুস্টারশায়ার কাউন্টি ক্রিকেট দলের ফিজিও হিসেবে কাজ করেছেন। ইংল্যান্ডের অ্যাথেনা অ্যাথলেটিকস লিমিটেডের স্পোর্টস সায়েন্স অ্যান্ড মেডিসিন কনসালট্যান্ট হিসেবে কাজ করেন ২০০৬ থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত। ফ্রান্স, স্পেন ও সুইজারল্যান্ডেও ফিজিও হিসেবে কাজের অভিজ্ঞতা আছে তার। যদিও ক্রিকেটের চেয়েও অন্য স্পোর্টসেই বেশি কাজের অভিজ্ঞতা তার। রাগবির কনসালট্যান্ট, হকি দলের ফিজিও, কাউন্টি ক্রিকেট, ব্রিটিশ ভারোত্তোলন, সুইজারল্যান্ডের আইস হকি দলেও ফিজিও এবং কন্ডিশনিং কোচ ছিলেন তিনি।

বিসিবির এক কর্মকর্তা জানান, ফিজিওথেরাপি ছাড়াও ট্রেনার হিসেবেও কাজের অভিজ্ঞতা ভালো কাজে দেবে। কোচিং কোর্সও করেছেন তিনি। তার এই অভিজ্ঞতা ঠিকমতো কাজে লাগাতে পারলে উপকৃত হবে দেশের ক্রিকেট। বাংলাদেশের ফিজিওথেরাপিস্টরাও জুলিয়ানের অভিজ্ঞতা থেকে শিখতে পারবেন। বিশেষ করে ট্রেনার হিসেবে কাজের অভিজ্ঞতা থাকায় খেলোয়াড়দের কন্ডিশন বুঝে চিকিৎসা দিতে পারবেন জুলিয়ান।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে