‘আবরার হত্যায় নির্ভুল অভিযোগপত্র দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি’

0
179
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। ফাইল ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, বুয়েটের ছাত্র আবরার ফাহাদের হত্যা মামলার অভিযোগপত্র দ্রুততম সময়ের মধ্যে দেওয়া হবে। মন্ত্রী বলেন, ‘এই হত্যার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তার করেছি। এই মামলার নির্ভুল অভিযোগপত্র দেওয়ার ব্যবস্থা করেছি। দ্রুততম সময়ের মধ্যে আবরারের পরিবার যাতে ন্যায়বিচার পায়, তার ব্যবস্থা করা হবে।’

মন্ত্রী আজ শনিবার রাজধানীর কারওয়ান বাজারের এফডিসি মিলনায়তনে ‘সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার এগিয়ে চলছে’ শীর্ষক বিতর্ক প্রতিযোগিতায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘আবরার হত্যায় আমরা বিস্মিত হয়েছি। কারণ, এ হত্যার সঙ্গে জড়িতরাও বুয়েটের মেধাবী ছাত্র। তাদের মস্তিষ্ক বিকৃত হবে, তা ভাবতেও পারিনি।’

আসাদুজ্জামান খান বলেন, বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বর্তমান সরকার সন্ত্রাস ও জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রণে সক্ষম হয়েছে। এখন দুর্নীতি ও মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান পরিচালনা করছে। অনিয়ম ও মাদকের বিরুদ্ধে সরকার জিরো টলারেন্স নীতিতে এগিয়ে চলছে। তিনি আরও বলেন, ‘আমরা কোনো সেক্টর বা এলাকার ওপর ভিত্তি করে অভিযান পরিচালনা করছি না। যেখানে অনিয়ম, দুর্নীতি হচ্ছে, সেখানেই অভিযান পরিচালনা করা হচ্ছে। কোনো দুর্নীতিবাজ ও দখলবাজ যাতে কোনো ধরনের অনিয়ম ও দুর্নীতি করতে না পারে, সে জন্যই এই অভিযান চালানো হচ্ছে।’

মন্ত্রী বলেন, নতুন প্রজন্মের জন্য একটি সুন্দর দেশ গড়ার লক্ষ্যে দুর্নীতি ও মাদক নির্মূল না হওয়া পর্যন্ত অভিযান চলবে। টেকসই উন্নয়নের জন্য দরকার টেকসই নিরাপত্তাব্যবস্থা। তাই র‍্যাব, বিজিবি, পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ঢেলে সাজানো হচ্ছে।

আসাদুজ্জামান খান বলেন, ‘জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের চেতনাই ছিল একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ প্রতিষ্ঠা করা। বঙ্গবন্ধুর মৃত্যুর পর আমরা পথ হারিয়েছিলাম। তাঁর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার লড়াইয়ে অনেক দূর এগিয়ে গেছি।’ তিনি আরও বলেন, আওয়ামী লীগ ২০০৮ সালে ক্ষমতায় আসার সময় সারাদেশে ৯ থেকে ১০ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হতো। এ বছর ৩২ হাজার মণ্ডপে দুর্গাপূজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। মন্ত্রী বলেন, দেশের এমন কোনো জেলা নেই, যে জেলায় বৌদ্ধধর্মের প্রতিষ্ঠান নেই। সব ধর্মের লোক দেশে সম্প্রীতির সঙ্গে বসবাস করছে। তাই অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ প্রতিষ্ঠার জন্য দুর্নীতির বিরুদ্ধে অভিযানের কোনো বিকল্প নেই।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে