আফগানিস্তানে মসজিদে হামলায় নিহত ২০: নিরাপত্তা কর্মকর্তা

0
59
নিরাপত্তা টহলে থাকা এক তালেবান যোদ্ধা।ছবি: রয়টার্স

কাবুলের রাজধানীতে একটি হাসপাতাল পরিচালনা করে থাকে ইতালীয় বেসরকারি সংস্থা ইমার্জেন্সি। সংস্থাটি জানিয়েছে, আহত ২৭ জনকে তারা চিকিৎসা দিয়েছে। তাঁদের মধ্যে তিনজন মারা গেছেন। আহত ব্যক্তিদের মধ্যে পাঁচজন শিশু।

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুল

তালেবান সরকারের মুখপাত্র জাবিহউল্লাহ মুজাহিদ হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করলেও কতজন তা উল্লেখ করেননি। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘বেসামরিক নাগরিকদের হত্যাকারী ও হোতাদের তাদের অপরাধের জন্য শিগগিরই শাস্তি পেতে হবে।’

সংবাদ সংস্থাগুলোকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, উত্তর কাবুলের উপকণ্ঠে খায়ের খান্নায় সিদ্দিকিয়া মসজিদে শক্তিশালী বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। বিস্ফোরণের তীব্রতায় আশপাশের বাসাবাড়ির জানালার কাচ ভেঙে যায়।

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্থানীয় এক বাসিন্দা জানান, নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে মসজিদের ইমাম মোল্লা আমির মোহাম্মদ কাবুলিও রয়েছেন। ক্ষমতা গ্রহণের পর দেশে নিরাপত্তা ফেরানোর দাবি করে আসছে তালেবান। কিন্তু এর মধ্যেই প্রায়ই হামলা চালাচ্ছে বিভিন্ন সশস্ত্র গোষ্ঠী।

সাম্প্রতিক মাসগুলোতে চালানো অধিকাংশ হামলার দায় স্বীকার করেছে জঙ্গি গোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের অনুসারী ইসলামিক স্টেট খোরাসান প্রদেশ (আইএসকেপি/আইএসআইএস-কে)।

গত সপ্তাহে কাবুলের একটি মাদ্রাসায় চালানো বোমা হামলায় তালেবানের প্রভাবশালী ধর্মীয় নেতা শেখ রহিমুল্লাহ হাক্কানি নিহত হন বলে জানান তালেবান কর্মকর্তারা। ওই হামলার দায় স্বীকার করেছে ইসলামিক স্টেট।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.