অসুস্থ তামিম হাসপাতালে, চট্টগ্রামে খেলতে পারবেন তো?

0
197
ভাইরাস জ্বরে পড়ে হাসপাতালে যেতে হয়েছে তামিমকে।
ভাইরাস জ্বরে ভুগছেন ঢাকা প্লাটুনের ওপেনার তামিম ইকবাল। বিপিএলের চট্টগ্রাম পর্বে তামিমের না খেলার সম্ভাবনাই বেশি

বিপিএল ঢাকা-পর্ব শেষ করে এখন চট্টগ্রামে। ঢাকা প্লাটুনের হয়ে এবারের বিপিএল খেলছেন, তবে তামিম ইকবাল চট্টগ্রামেরই ছেলে। স্বাভাবিকভাবেই ঘরের মাঠে তাঁর খেলা দেখার প্রত্যাশায় আছেন চট্টগ্রামের ক্রিকেটপ্রেমীরা। কিন্তু তাঁদের জন্য দুঃসংবাদ, ভাইরাল জ্বরে সঙ্গে কুঁচকির চোটেও ভুগছেন দেশসেরা এ ওপেনার। আজ গিয়েছিলেন হাসপাতালেও। কাল তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার কথা সেখান থেকে। তবে বিপিএলের চট্টগ্রাম পর্বে তামিমের খেলার সম্ভাবনা প্রায় নেই বলেই প্রথম আলোকে জানিয়েছেন বিসিবির চিকিৎসক দেবাশিষ চৌধুরী।

গত শনিবার সিলেট থান্ডারকে হারিয়ে বিপিএলের ঢাকা-পর্ব শেষ করেছে তামিমের দল। চট্টগ্রামে তিনটি ম্যাচ খেলবে ঢাকা প্লাটুন। ঘরের মাঠে তামিমের খেলার সুযোগ আছে কি না, এ প্রশ্নের জবাবে দেবাশিষ চৌধুরী বলেন,‌ ‘আমার ধারণামতে নেই, কিন্তু কাল রিপোর্টটা পেলে নিশ্চিত হব আমরা। আর কয়েকটা টেস্ট আছে, ডেঙ্গুর টেস্টও করা হয়েছে। নিশ্চিত হওয়া গেলে তখন বলতে পারব। ওর শরীর এখন দুর্বল, তবে আমার ব্যক্তিগত মত হলো, আগামী দু-চার দিন (খেলায়) নেই এটা নিশ্চিত। শেষের দিকে একটা ম্যাচ (খেলতে) পারতেও পারে হয়তোবা।’

কাল জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে কুমিল্লা ওয়ারিয়র্সের মুখোমুখি হবে ঢাকা প্লাটুন। পরশুও ম্যাচ আছে ঢাকার। চট্টগ্রামে ঢাকার শেষ ম্যাচটি ২৪ ডিসেম্বর। তামিমের কুঁচকির চোটের চেয়ে তাঁর ভাইরাল জ্বর নিয়েই বেশি ভাবছেন দেবাশিষ চৌধুরী। তিনি তামিমের বর্তমান পরিস্থিতি ব্যাখ্যা করলেন,‌ ‘তামিমকে আজ বিভিন্ন ধরনের পরীক্ষা করানো হয়েছে। সে ভাইরাল জ্বরে ভুগছে। তেমন খারাপ কিছু না। আজ হাসপাতালে থাকতে বলেছে। কাল ছেড়ে দেবে। জ্বর কমছে আগের চেয়ে। কুঁচকিতে ব্যথা আছে, তবে ব্যথার চেয়ে আগে জ্বর নিয়ন্ত্রণ করতে হচ্ছে। জ্বরের জন্যই সে কয়েক দিন খেলার বাইরে থাকবে। কাল শরীর ভালো থাকলে ওর একটা স্ক্যান করানো হবে।’

ফুড পয়জনিং থেকে এমন কিছু হয়েছে কি না, এ প্রশ্নের জবাবে বিসিবি চিকিৎসকের ব্যাখ্যা,‌ ‘ফুড পয়জনিং আসলে না। ওর টয়লেট হচ্ছিল, বমি আসছিল, জ্বর। আর ফুড পয়জনিং কিন্তু ভাইরাসের কারণে হতে পারে। আমরা ঠিক নিশ্চিত না। তবে আজ নিশ্চিত হওয়া গেছে ডেঙ্গু না। এটা অনেকটা ভাইরাল রাইনাইটিস, এক কথায় বলতে গেলে এটা ভাইরাল অসুস্থতা।’

ঢাকা প্লাটুনের দ্বিতীয় ম্যাচে ৭৪ রানের দারুণ এক ইনিংস খেলেছিলেন তামিম। পরের ম্যাচে ৩১ রানের ইনিংসেও ছিল ছন্দে থাকার প্রতিশ্রুতি। চট্টগ্রামে তামিমকে না পেলে ঢাকা যে কৌশলগত সমস্যায় পড়বে সে কথা বলাই বাহুল্য।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য লিখুন দয়া করে!
এখানে আপনার নাম লিখুন দয়া করে